ফরম পূরণে অতিরিক্ত ফি আদায়

রানীশংকৈল ডিগ্রী কলেজের প্রশাসনিক ভবনে তালা

প্রকাশ : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:০৯ | আপডেট : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:২৮

রানীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি
ama ami

পরীক্ষার ফরম পূরণে অতিরিক্ত ফি আদায়ের প্রতিবাদে মঙ্গলবার ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল ডিগ্রী কলেজের প্রশাসনিক ভবনে তালা মেরে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন শিক্ষার্থীরা। দাবী না মানলে ক্লাশ বর্জনসহ কলেজের প্রশাসনিক ভবনের কার্যক্রম রুখে দেওয়ার কর্মসূচি ঘোষনা দেওয়া হবে বলে হুশিয়ারী দেওয়া হয়।

জানা যায়, কলেজ কর্তৃপক্ষ ডিগ্রী ৩য় বর্ষের ফরম পূরণ ১৬ আগষ্ট থেকে শুরু করে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শেষ সময় নির্ধারণ করে দিয়েছে। পরীক্ষার ফি নির্ধারণ করা হয়েছে তিন হাজার নয়শ পঞ্চাশ টাকা। অপরদিকে বিএসসি বিভাগের জন্য নির্ধারিত ফি’র সাথে সাতশ পঞ্চাশ টাকা বেশি দিতে হবে বলে কলেজ কর্তৃপক্ষ নোটিশ প্রদান করে।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, কলেজ কর্তৃপক্ষ অযোক্তিকভাবে আমাদের ফরম পুরণে অতিরিক্ত ফি আদায় করছে। 

শিক্ষার্থী কাজল, ফারজানা, মারুফা ও আনজু বলেন, আমরা গরীব পরিবারের সন্তান। কষ্ট করে পড়াশোনা করছি। এখন ডিগ্রী ৩য় বর্ষের পরীক্ষা দেব। কিন্তু কলেজ কর্তৃপক্ষ ফরম পূরণের ফি নিধারণ করেছেন তিন হাজার নয়শ পঞ্চাশ টাকা। যা আমাদের পক্ষে দেওয়া অসম্ভব। 

শিক্ষার্থী সুজন, জমিরুল, ইসলাম, মান্নান ও ইব্রাহিম বলেন, অন্যান্য কলেজে ফরম পূরণে ফি কম থাকলেও আমাদের কলেজে তার থেকেও অনেক বেশি ধরা হয়েছে। আমরা কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে আপত্তি জানালেও তারা আমাদের ধমক দেন এবং বলেন ফরম পূরণ করলে করো না হলে নাই। তাই আমরা এর প্রতিবাদে প্রাথমিকভাবে প্রশাসনিক ভবনে তালা মেরে বিক্ষোভ মিছিল করেছি। অতিরিক্ত ফি কমিয়ে বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত এক হাজার চারশ টাকা ফি দিয়ে ফরম পুরনের দাবী না মানলে আমরা ক্লাশ বর্জনসহ প্রশাসনিক সমস্ত কার্যক্রম রুখে দেওয়াসহ তীব্র আন্দোলনের কর্মসুচি ঘোষনা দেব।

পাশ্ববর্তী মহিলা ডিগ্রী কলেজের উপাধ্যক্ষ মহাদেব বসাক জানান, আমরা ফরম পূরণে ফি নির্ধারণ করেছি তিন হাজার চারশ টাকা। নেকমরদ বঙ্গবন্ধু ডিগ্রী কলেজ অধ্যক্ষ শাহাজাহান আলী মুঠোফোনে বলেন, আমরা ফি নির্ধারন করেছি দুই হাজার দুইশ টাকা। গাজীর হাট ডিগ্রী কলেজ অধ্যক্ষ আব্দুল কুদ্দুস জানান, আমরা ডিগ্রী ৩য় বর্ষের ফি নির্ধারণ করেছি তিন হাজার সাতশ টাকা।

শিক্ষক প্রতিনিধি প্রভাষক সফিকুল আলম, নাসরিন আক্তার, গর্ভনিং বডির সদস্য কুশমত আলী বলেন, ম্যানেজিং কমিটির কোন রকম সিদ্বান্ত ছাড়াই ডিগ্রী ৩য় বর্ষের ফরম পূরণ ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। তাই এই আন্দোলনের দায়ভার কলেজের অধ্যক্ষ ও উপাধাক্ষের।

তবে কলেজের অধ্যক্ষ তাজুল ইসলাম ও উপাধ্যক্ষ জামালউদ্দীন ঢাকায় অবস্থান করায় তাদের মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

গভর্নিং বডির সভাপতি ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের এমপি ইয়াসিন আলী মুঠোফোনে বলেন, আমি বিষয়টি আগে জানি তারপর জানাবো।

পিডিএসও/ এআই