হিলি স্থলবন্দর আড়ৎ

কমেছে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম

প্রকাশ : ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১৩:২৮ | আপডেট : ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১৩:৪৫

হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

বেশ কিছুদিন ধরে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দামে নিম্নমুখী প্রবণতা বজায় রয়েছে। এ ধারাবাহিকতায় ঈদকে সামনে রেখে পণ্যটির ৫ দিনের ব্যবধানে প্রকার ভেদে দাম কমেছে কেজিতে ৬ থেকে ৭ টাকা। গতকাল বুধবার যে পেঁয়াজ প্রতি কেজিতে বিক্রি হয়েছে ২৭ থেকে ৩১ টাকা। সেই পেঁয়াজ আজ বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকায়।

ঈদ কেন্দ্র করে দেশজুড়ে বাড়তি চাহিদার কথা মাথায় রেখে স্থানীয় আমদানিকারকরা পেঁয়াজ আমদানি বাড়িয়েছেন। মূলত আমদানি ও সরবরাহ আগের তুলনায় বেড়ে যাওয়ায় হিলির পাইকারি বাজারে কমতির দিকে রয়েছে পেঁয়াজের দাম। একইসঙ্গে দেশে উৎপাদিত পেঁয়াজের দামও রয়েছে কমতির দিকে।

ঈদে পেঁয়াজের বাজার সহনীয় পর্যায়ে রাখতেই বেশি বেশি এলসি জমা দিয়েছেন হিলি স্থলবন্দরের ব্যবসায়ীরা। ফলে ভারতের নাসিক, উত্তর প্রদেশ, মহারাষ্ট্র, রাজস্থান, পাঞ্জাব, ইন্দ্র থেকে প্রতিদিন ৭৫ থেকে ৮০ ট্রাক পেঁয়াজ আমদানি হচ্ছে এ বন্দর দিয়ে। ঈদের আগেই পর্যন্ত পর্যাপ্ত পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি করা হবে বলে জানান বন্দরের ব্যবসায়ীরা।

এদিকে হিলি কাস্টমসের হিসেব মতে, গত এক সপ্তাহে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে ৪শ ৪১টি ট্রাকে সাড়ে ৯ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে এ বন্দর দিয়ে ।

হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন-উর রশিদ হারুন জানান, কোরবানি ঈদে দেশের বাজারে পেঁয়াজের সরবরাহ ও দাম স্বাভাবিক রাখতে পণ্যটির আমদানি বাড়িয়ে দিয়েছেন স্থানীয় আমদানিকারকরা। খোলা হয়েছে অনেক নতুন এলসি। ভারত থেকে দেশে ঢোকার অপেক্ষায় রয়েছে পেঁয়াজবাহী অনেক ট্রাক। দেশের বাজারে এসব পেঁয়াজ উঠলে আগামী দিনগুলোয় পণ্যটির দাম বর্তমানের তুলনায় আরো কমে আসতে পারে।

পিডিএসও/হেলাল