খাগড়াছড়িতে অপহৃত ৪ গ্রামবাসীকে উদ্ধার

প্রকাশ : ১৪ আগস্ট ২০১৮, ১৪:১০ | আপডেট : ১৪ আগস্ট ২০১৮, ১৪:৩০

শংকর চৌধুরী, খাগড়াছড়ি

খাগড়াছড়ির জেলা শহর থেকে অপহৃত চার গ্রামবাসীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শহরের হাইস্কুল মাঠ এলাকা থেকে পুলিশ তাদের উদ্ধার করতে সমর্থ হয়। উদ্ধারকৃতরা হলেন—জেলা সদরের জোরমরম ও শিবমন্দির এলাকার বাসিন্দা টোকাই ত্রিপুরা, সুকেন্দু ত্রিপুরা, সিন্দুরায় ত্রিপুরা ও মশা ত্রিপুরা।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মর্কতা (ওসি) সাহাদাত হোসেন টিটো জানান, সোমবার রাত থেকে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়েছি। সন্ত্রাসীরা পরিস্থিতি টের পেয়ে আটকে রাখা চার ব্যক্তিকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে। আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তাদেরকে হাইস্কুল মাঠ এলাকা থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। ডাক্তারি পরীক্ষার পর তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আজ দুপুরে স্থানীয় ইউপি সদস্যের মাধ্যমে  আন্দোলনরতদের কাছে তুলে দেয়া হয়।

এর আগে চার গ্রামবাসীকে অপহরণের অভিযোগে আজ সকাল থেকে খাগড়াছড়ি-পানছড়ি সড়কে অবরোধ করেন বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। পানছড়ি-খাগড়াছড়ি সড়কের পেরাছড়া, গিরিফুল ও শিব মন্দির এলাকায় সকাল থেকেই স্থানীয়রা সড়কে গাছ ফেলে আগুন দিয়ে সড়ক অবরোধ করে। ফলে ওই সড়কে সকাল থেকে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। যান চলাচল বন্ধ থাকায় ভোগান্তিত পড়ে এ সড়কে চলাচলকারী চাকরিজীবি-শিক্ষার্থীসহ হাজারো মানুষ।

আজ দুপুরে অপহৃত চার ব্যক্তিকে পুলিশ উদ্ধার করে আন্দোলনরতদের কাছে তুলে দেো হয়। পরে আন্দোলনরত জনতা উদ্ধার হওয়া চার ব্যক্তিকে নিয়ে স্বনির্ভর এলাকা থেকে  মিছিল করে গাছবান এলাকার দিকে অগ্রসর হন। পরে গ্রামবাসী তিন দফা দাবিতে পানছড়ি সড়কের গাছবান এলাকায় আবারো সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) খাগড়াছড়ি সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরা জানান, তিন দফা বাস্তবায়নের দাবিতে গ্রামবাসী সড়ক অবরোধ করেছে।

এদিকে ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা অস্বীকার করে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির ( জেএসএস-এমএন লারমা) কেন্দ্রীয় সহ-তথ্য ও প্রচার সম্পাদক প্রশান্ত চাকমা জানান, এই ঘটনার সঙ্গে আমাদের পার্টি কোনোভাবেই জড়িত নয়  এবং বিষয়টি আমাদের জানা নেই। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বিষয়টি আমাদের ওপর চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে।

পিডিএসও/হেলাল