মিরসরাইয়ে প্রতিদিনের সংবাদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

প্রকাশ : ০৭ আগস্ট ২০১৮, ২০:০৩ | আপডেট : ০৭ আগস্ট ২০১৮, ২০:৩৪

মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে দৈনিক ‘প্রতিদিনের সংবাদ’ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে উদযাপন করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার মিরসরাই সদরের জেলা পরিষদ মিলনায়তনে দিনব্যাপি অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন মিরসরাই পৌর মেয়র মোঃ গিয়াস উদ্দিন।

মিরসরাই উপজেলা চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) ইয়াসমিন আক্তার কাকলী’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও প্রতিদিনের সংবাদ এর উপ-সম্পাদক কাজী আবুল মনসুর। 

দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ পত্রিকার মিরসরাই প্রতিনিধি ও মিরসরাই প্রেসক্লাব সভাপতি শারফুদ্দীন কাশ্মীর এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচক হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন নিজামপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ মো. রফিক উদ্দিন (নেতৃত্ব), মিরসরাই বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ মো. নুরুল আবছার (রাজনীতিমুক্ত শিক্ষাঙ্গন), মুক্তিযুদ্ধকালীন ডেপুটি কমান্ডার জাফর উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী (মুক্তিযুদ্ধের গল্প)।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জোরারগঞ্জ মহিলা কলেজে প্রাক্তন অধ্যক্ষ কামরুল ইসলাম, জে.বি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক সুভাষ সরকার, কবি দাউদুল ইসলাম, শান্তিনীড় সভাপতি আশরাফউদ্দিন সোহেল, দূর্বার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হাসান সাইফউদ্দিন, দীপ জ্বেলে যাই সভাপতি আনিচ মোর্শেদ প্রমুখ। 

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন অপ্কা’র নির্বাহী পরিচালক মো. আলমগীর,  মিরসরাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মহিউদ্দিন, মিরসরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আজিম উদ্দিন ভূঁইয়া, মজহারুল হক চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হেদায়েত উল্ল্যাহ চৌধুরী, কমফোর্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. নিজামউদ্দিন, মারুফ মডেল বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নাজিম উদ্দিন, শিক্ষক হোসাইন সবুজ, দিদারুল আলম, মিরসরাই প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক এনায়েত হোসেন মিঠু, কোষাধ্যক্ষ আবু সাঈদ ভূঁইয়া, প্রচার সম্পাদক এম. মাঈন উদ্দিন, ক্রীড়া সম্পাদক এম. আনোয়ার হোসেন, সাংবাদিক সুজন চন্দ্র মন্ডল, সাংবাদিক বাবলু দে, সাংবাদিক আজিজ আজহার, সাংবাদিক সাদমান সময়। 

সামাজিক উন্নয়ন মূলক সংগঠন ‘দীপ জ্বেলে যাই’ এর সহযোগিতায় ৮টি বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে তিন বিভাগে প্রতিযোগীতার আয়োজন ছিলো অনুষ্ঠানের অন্যতম বিশেষ আকর্ষন। স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক কবিতা আবৃতি, লোক সংগীত এবং গ্রামীন ঐতিহ্যের ‘কানাকানি’ খেলা বিভাগে প্রতিযোগীতায় অংশ নেয় শিক্ষার্থীরা। প্রতিযোগীতায় বিচারকের দায়িত্ব পালন করেছেন শিক্ষক ও কবি শাহাদাত হোসেন লিটন, শিক্ষিকা লিপিকা রায়, নির্মল দাম লক্ষণ। 

আবৃতি ক শাখার প্রতিযোগীতায় প্রথম হয় সাবেকুর নাহার ঐশি, দ্বিতীয় হয় তানিশা তাহসিন এবং তৃতীয় হয় মোহাম্মদ তাকদীর তাহরীম তাকী। 
কবিতা আবৃতি খ শাখায় প্রথম হয়েছে সানভিরাজ হোসেন ভূঁইয়া, দ্বিতীয় হয় তাসরিনা তাহসিন মজুমদার এবং তৃতীয় হয় মারিয়া ইয়াছমিন। লোকগীতি ক শাখায় বিজয়ীরা হলেন যথাক্রমে ইতি বড়ুয়া প্রত্যাশা, তুর্না দে ও সাখী রানী দাস। লোকগীতি খ শাখায় বিজয়ীরা হলো যথাক্রমে ইন্দ্রিলা ঘরজা, আবদুল্লা আল আরীব ও জারিন তাসনিম শৈলি। 

গ্রামীণ ঐতিহ্যের খেলা কানাকানি (হুশাহুশি) খেলায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বিশ্ব দরবার উচ্চ বিদ্যালয় দল। অনুষ্ঠানের মাঝে মাঝে মনোজ্ঞ গান পরিবেশন ‘দিপ জ্বেলে যাই’ সংগঠনের সদস্যরা। সবশেষে পুরস্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের পরিসমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

পিডিএসও/তাজ