স্ত্রী’র কাছে ভাড়া বেশি চাওয়ায় চালককে মারলেন ইউপি সদস্য

প্রকাশ : ১২ জুলাই ২০১৮, ২১:০৪ | আপডেট : ১২ জুলাই ২০১৮, ২১:১৮

রাকিবুল ইসলাম রাকিব, গৌরীপুর(ময়মনসিংহ)

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে স্ত্রীর কাছ থেকে ইজিবাইকের সিট ভাড়া বেশি চাওয়ায় সাইফুল ইসলাম নামে এক চালককে মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে মইলাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য শামছুল আলমের বিরুদ্ধে। পরে ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে গোবিন্দপুর- গৌরীপুর, গোবিন্দপুর-শ্যামগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কে ইজিবাইক চলাচল বন্ধ রাখে চালকরা। এসময় ইউপি সদস্যের সমর্থক বাদশাকে মারধর করেছে বিক্ষুব্ধ চালকরা।

বৃহস্পতিবার এ রিপোর্ট পাঠানোর সময় সন্ধ্যা পর্যন্ত ওই আঞ্চলিক সড়কগুলোতে ইজিবাইক চলাচল বন্ধ রয়েছে। এর আগে গত মঙ্গলবার ওই ইউপি সদস্য ইজিবাইক চালককে মারধর করে।

স্থানীয় ও চালকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার  ইউপি সদস্য’র  স্ত্রী ও সন্তান গৌরীপুর থেকে সাইফুল আলমের ইজিবাইকে চড়ে গোবিন্দপুর বাজারে আসে। পরে ইউপি সদস্যের স্ত্রী সাথে থাকা সন্তানের ভাড়া না দিয়ে শুধু নিজের ভাড়া ১৫ টাকা দিয়ে চলে যেতে চাইলে চালক সাইফুলের সাথে সন্তানের ভাড়া নিয়ে বাক-বিতণ্ডা হয়। এর কিছুক্ষণ পরেই ওই ইউপি সদস্য শামছুল আলম গোবিন্দপুর ইজিবাইক স্ট্যান্ডে এসে চালক সাইফুলকে মারধর করেন।

চালক সাইফুল ইসলাম বলেন, গত মঙ্গলবার বিকালে আলম মেম্বারের স্ত্রী ও সন্তান আমার গাড়িতে চড়ে গৌরীপুর থেকে গোবিন্দপুর আসে। পরে তিনি নিজের সিট ভাড়ার জন্য ১০ টাকা দিয়ে চলে যেতে চাইলে বাক-বিতণ্ডা হয়। এরপরই মেম্বার সাহেব এসে আমাকে মারধর করেন।

অটোচালক সমিতির সভাপতি আইনুল হক জানান, চালককে মারধরের ঘটনার দু’দিন অতিক্রম করেছে। কেউ শান্তনা দিতেও আসেনি। তাই ঘটনার বিচারের দাবিতে সকল চালকদের সিদ্ধান্তক্রমেই ইজিবাইক চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। 

অপরদিকে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য শামছুল আলম বলেন, গাড়ি চালকরা প্রায়ই যাত্রীদের অশোভন ও অশালীন আচরণ করে থাকে। যেহেতু আমার স্ত্রী ও সন্তানের সাথে খারাপ ব্যবহার করেছিলো তাই গাড়ি চালককে একটি থাপ্পর মেরেছিলাম। কিছুক্ষণ পরেই ঘটনার জন্য অনুতপ্ত হয়ে আরো ৪/৫জন নিয়ে গিয়ে ওই চালকের কাছে ভুল স্বীকার করে ও শান্তনা দিয়ে বিষয়টি নিষ্পত্তি করে দিয়েছিলাম। এরপরে একটি চক্র ঘটনাটিকে নিয়ে খেলায় মেতে উঠেছে।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার আহম্মদ জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। নিষ্পত্তির চেষ্টা চলছে। এখন পর্যন্ত কেউ কোনও অভিযোগ দেয়নি।

পিডিএসও/রিহাব