রংপুরে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে রাজস্ব ফাঁকির অভিযোগ

প্রকাশ : ০৯ জুলাই ২০১৮, ১৫:৩৮ | আপডেট : ০৯ জুলাই ২০১৮, ১৬:০৩

রংপুর ব্যুরো

রংপুরাঞ্চলে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো কোম্পানির রংপুরস্থ পরিবেশক শাইরিন এন্টারপ্রাইজ কর্তৃক ক্ষুদ্র খিলিপান ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে ও মনগড়া মূল্য নির্ধারণ করে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী, ভোক্তা সাধারণ ও সর্বোপরি সরকারকে রাজস্ব ফাঁকি দেয়ার প্রতিবাদ জানানো হয়।  

সোমবার রংপুর জেলা প্রশাসক এনামুল হাবীব ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর রংপুর বিভাগের উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) খন্দকার মোহাম্মদ নূরুল আমীনের সাথে সৌজন্য স্বাক্ষাৎ করেন রংপুর জেলা খিলিপান দোকান মালিক সমিতি।

এ সময় নেতৃবৃন্দরা ক্ষুদ্র খিলিপান ব্যবসায়ীদের মুনাফা বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে বলেন, ১৯৮২ সালে এক প্যাকেট গোল্ডলিফে মুল্য ছিলো ৩২টাকা। সেখানে মুনাফা আসতো ৮টাকা। ২০১৮ সালে এক প্যাকেট গোল্ডলিফে মুল্য ছিলো ১৪৮ টাকা। এখন পুঁজি বেশি খাটিয়েও মুনাফা হচ্ছে না। সেখানে শাইরিন এন্টারপ্রাইজ প্রায় ১৪ হাজার ব্যবসায়ীদের নিকট থেকে অর্ধ কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন প্রতিদিন। আর বেশি পুঁজি লাগিয়ে লোকসানের মুখ দেখছেন ক্ষুদ্র খিলিপান ব্যবসায়ীরা।

সৌজন্য স্বাক্ষাতকালে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর রংপুর জেলার সহকারি পরিচালক আফরোজা পারভীন, রংপুর মহানগর দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদিন, যূগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম খোকন, সদস্য আসাদুজ্জামান লিটন, রংপুর জেলা খিলিপান দোকান মালিক সমিতির আহবায়ক ইব্রাহিম ব্যাপারী, যূগ্ম আহবায়ক আক্কাস আলী, আহসান হাবিব, আব্দুল খালেক, ছাদেকুল ইসলাম, বাশার আহমেদ, গোলাম মোস্তফা হিরা ও মুরাদ হোসেন। 

পিডিএসও/রিহাব