ফার্মেসীতে নাক অপারেশন, প্রাণ গেলো যুবকের

প্রকাশ : ১৭ মে ২০১৮, ১৬:১৯ | আপডেট : ১৭ মে ২০১৮, ১৬:৪৮

অনলাইন ডেস্ক

মেহেরপুরের আলমপুরে হাতুড়ে ডাক্তার ফকরুজ্জামান ওরফে ফকুর অপারেশনে সাইদুর রহমান (১৯) নামের এক যুবকের মুত্যু হয়েছে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে আলমপুর বাজারের তামান্না ফার্মেসিতে পলিপাস অপারেশনের সময় এ ঘটনা ঘটে।
নিহত সাইদুর রহমান গাংনী উপজেলার গাড়াডোব গ্রামের দিনমজুর সানোয়ার হোসেনের ছেলে। নিহতের পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গাড়াডোব গ্রামের ফকরুজ্জামান ওরফে ফকু ডাক্তার হিসেবে আলমপুর গ্রামে ফার্মেসি খুলে চিকিৎসা দিয়ে আসছিলেন। কোনো সনদ না থাকলেও তিনি বিভিন্ন প্রকার অপারেশন করে থাকেন।

বৃহস্পতিবার সকালে নাকের পলিপাস অপারেশনের জন্য পরিবারের লোকজন সাইদুরকে ফকুর কাছে নিয়ে যায়। নাকের অপারেশন করা অবস্থায় সাইদুরের মৃত্যু হয়। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে মৃত সাইদুরকে গুরুতর অসুস্থ দাবি করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায় ফকু। পরে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে সাইদুরকে রেখে কৌশলে পালিয়ে যায় সে।

মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাঃ এহসানুল কবির বলেন, হাসপাতালে পৌঁছুনোর আগেই সাইদুরের মৃত্যু হয়েছে। ভুল অপারেশনে অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।
কিভাবে ফকু ডাক্তার অপারেশন করছে তা স্বাস্থ্য বিভাগ খতিতে দেখছে বলেও জানান তিনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নিজেকে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দাবি করে ফকরুজ্জামান ফকু। নিজ চেম্বারে রয়েছে একটি অপারেশন থিয়েটর। নাক, কান ও গলাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে অপারেশনে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি রয়েছে। তিনি প্রতিনিয়ত অপারেশন করেন। তার অপারেশনে এর আগেও কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে। সাইদুরের পরিবার ফকুর বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।
মেহেরপুর সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রবিউল ইসলাম বলেন, মরদেহ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পিডিএসও/রিহাব