দুর্গাপুর বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডারের অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশ : ০২ জানুয়ারি ২০১৮, ১৭:৩৮

লালমনিরহাট প্রতিনিধি

লালমনিরহাটের দুর্গাপুর বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার জয়েন উদ্দিনের অপসারনের দাবীতে দুর্গাপুর ইউনিয়নবাসী বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করেছে।  মঙ্গলবার সকালে আদিতমারী উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের দুর্গাপুর বাজারে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে দুর্গাপুরবাসী জানায়, লালমনিরহাট জেলার আদিতমারী উপজেলার দুর্গাপুর সীমান্তে বেশ কয়েকদিন ধরে বিজিবি বিওপি কমান্ডার ও  ওয়ালেস ওপারেটর এরশাদ কর্তৃক সীমান্তের নিরিহ ও সাধারণ গ্রামবাসীকে বাড়ী ও দোকান থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে মিথ্যা মাদক মামলায় জড়িয়ে হয়রানী করছে। এতে করে এলাকার জনসাধারনের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে। আমরা সাধারন জনগন বাড়ি থেকে বের হতে পারছি না। 

এলাকাবাসী আরও জানায়, স্থানীয় ইউপি সদস্য মোস্তাকিন মেম্বার এক সময় ভারতীয় গরুর ব্যবসার লাইন ম্যান ছিল। বর্তমানে তিনি বিজিবির সোর্স হিসেবে কাজ করে বিভিন্ন লোককে মামলার ভয় দেখিয়ে হয়রানী করে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে বলে জানায়।

সীমান্তের মান্নানের চৌপতি এলাকার জুলহাস আলী জানায়, আমি একজন সাধারন কৃষক। মাদকের সাথে আমার কোন সম্পৃক্তা নেই। বিষয়টি আমি বেশ কয়েকবার বিজিবির বিওপি কমান্ডারকে বার বার অবহিত করি। কিন্তু ওনি আমাকে ফেন্সিডিল ও গরু ব্যবসায়ীকে ধরে দিতে বলে। আমি তা করতে রাজি না হওয়ায় আমাকে বিভিন্ন ভাবে মামলা দিয়ে হয়রানী করছে।

বীরমুক্তিযোদ্ধা মৃত মহসিন আলীর স্ত্রী জানান, আমার ছেলে মিলন চৌধুরী কোন দিনও মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত ছিল না। আমি একজন একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী। আমার বড় ছেলে মিল্টন পুলিশ বিভাগে কর্মরত আছে। আমার ছোট ছেলে মিলনকে বিদেশ পাঠানোর জন্য কার্যক্রম চলছে। কিন্তু এলাকার কতিপয় স্বার্থনেম্বী মহল এর সাথে আমার জমি নিয়ে বিরোধ থাকায় তারাই বিজিবির সাথে যোগসাজস করে অর্থের বিনিময়ে আমার ছেলেকে ধরে ফেন্সিডিল মামলায় জড়িয়েছে। আমি প্রশাসনের উদ্ধর্তন কর্মকর্তার নিকট সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে বিচার চাই।

হয়রানীর শিকার লাদেন ও মিজানের পরিবার জানান, বিজিবি ও মোস্তাকিন মেম্বারের কথা মত কাজ না করায় তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। এছাড়াও আজ আমরা বিজিবি’র এহেন কর্মকান্ডের প্রতিবাদ ও মানববন্ধন করায় বিজিবি সদস্যরা আমাদেও বাড়িতে বাড়িতে হামলা চালিয়েছে। বাড়ির লোকজনদের নির্যাতন করেছে। তারা অবিলম্বে উক্ত ক্যাম্প কমান্ডার জয়েন উদ্দিনের অপসারনের দাবী জানান।
এব্যাপারে দুর্গাপুর বিওপি কমান্ডার জয়েন উদ্দিন এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিকদের সাথে কোন কথা বলবে না বলে জানান। 
লালমনিরহাট ১৫ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)র অধিনায়ক লে. কর্নেল গোলাম মোর্শেদ এর নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, দুর্গাপুর বাজারে হাতে গোনা যে কয়েকজন লোক বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে তারা সবাই মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। তিনি আরও বলেন, ওই এলাকায় যারাই মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত থাকবে বিজিবি তাদের ধরে মামলা দেবে। 

পিডিএসও/রানা