মেয়েকে ৬০০ বার ধর্ষণ করল বাবা, হতে পারে ১২ হাজার বছর জেল!

প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০১৭, ১৬:০৬

অনলাইন ডেস্ক

বাবা হয়ে নিজের মেয়েকে ৬০০ বার ধর্ষণ করেছেন। বিষয়টি এতোদিন ওই মেয়ে ভয়ে কাউকে না জানালেও এবার মুখ খুলেছেন। বাবার বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ তুলেছেন মেয়ে।

ঘটনাটি ঘটেছে মালয়েশিয়ায়। অভিযোগে মেয়েটি বলেছে, তার বাবা তাকে বিভিন্ন সময়ে ৬০০ বারেরও বেশি ধর্ষণ সহ নানা ধরনের যৌন নির্যাতন করেছে।

বৃহস্পতিবার এমন খবর দিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। মেয়েটির মা সম্প্রতি স্থাপিত যৌন নির্যাতন সংক্রান্ত বিশেষ আদালতে এই মামলা দায়ের করেন।

দেশটির আইন কর্মকর্তারা বলছেন, তার বিরুদ্ধে এই অভিযোগগুলো প্রমাণিত হলে ১২ হাজার বছর কারাদণ্ড হতে পারে।

পত্রিকাটির প্রতিবেদনে বলা হয়, তার মায়ের সঙ্গে বাবার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। তারপর থেকে মেয়েটি তার বাবার কাছেই ছিল। বিচ্ছেদ হওয়া ৩৬ বছর বয়সী ওই বাবার বিরুদ্ধে ৬২৬টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যা পড়তে কোর্টের ২ দিন সময় লেগেছে।

জানা গেছে, বিচ্ছেদের পর মেয়েটির মা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করলে গত ২৬ জুলাই ওই বাবাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে আনা ৬২৬টি অভিযোগের সবগুলোই চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুলাইয়ের মধ্যে সংঘটিত হয়েছে। যখন মেয়েটি তার বাবার কাছেই ছিল।

আদালতে যখন লোকটির বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলো পড়া হচ্ছিল তখন ধূসর রংয়ের টি-শার্ট ও নীল রংয়ের প্যান্ট পরিহিত অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি চুপচাপ দাঁড়িয়ে ছিল।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের একজন আইনজীবি এমি সাজওয়ানি বলেন, অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি ১২ হাজার বছর কারাদন্ডের সম্মুখীন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে এ সাজা তাকে ভোগ করতে হবে।
তিনি বলেন, প্রতিটি অভিযোগের জন্য তাকে ২০ বছর করে সাজা হতে পারে। সে হিসেবে ১২ হাজার বছরের কারাদণ্ড হতে পারে।

অভিযুক্তের আইনজীবী তার জন্য জামিনের আবেদন করলে বিচারক ইয়ং জারিদা সাজিলি ওই আইনজীবীকে সতর্ক করে দিয়ে জামিনের আবেদনটি প্রত্যাখ্যান করেন।

আদালত বলেন, তাকে (অভিযুক্ত বাবা) জামিন দেওয়া হলে সে পালিয়ে যেতে পারে অথবা মামলার স্বাক্ষীকে ভয় দেখাতে পারে।

অভিযোগগুলো এখনো প্রমাণিত না হওয়ায় এবং বিচার কাজ প্রক্রিয়াধীন থাকায় অভিযুক্তের নাম পরিচয় গোপন রাখা হয়েছে।

পিডিএসও/রিহাব