বিয়ের ২ সপ্তাহ পর ইমাম জানলেন তার স্ত্রী মেয়ে নয়!

প্রকাশ : ১৫ জানুয়ারি ২০২০, ১১:৪২ | আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২০, ১৭:২২

অনলাইন ডেস্ক

ইসলাম রীতি মেনে বেশ আয়োজন করে বিয়ে করেন মসজিদের এক ইমাম। কিন্তু বিয়ের প্রায় দুই সপ্তাহ পর ওই ইমাম জানতে পারেন—যাকে বিয়ে করেছেন তিনি মেয়ে না, ছেলে। এই ঘটনা ঘটেছে উগান্ডার এক গ্রামে।

মোহাম্মদ মুতুম্বা নামের ওই ইমাম দেশটির কিয়োঙ্গা জেলার কিয়াম্পিসি গ্রামের বাসিন্দা। তিনি সব্বুল্লাহ নাবুকেরা নামের মেয়েকে বিয়ে করেন।

বিয়ের পর এক সঙ্গেই ছিলেন তারা। কিন্তু মুতুম্বার ‘স্ত্রী’ বিয়ের পরই জানান তার মাসিক চলছে। এজন্য তিনি তার স্বামীকে ঘনিষ্ঠ হতে দেননি।

তবে মুতুম্বার এক প্রতিবেশী অভিযোগ করে তাকে বলেন, তার ‘স্ত্রী’ দেয়াল টপকে তাদের টেলিভিশন সেট এবং কাপড় চুরি করেছে। এরপর ওই প্রতিবেশী থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

পড়ুন : মনের টান

কিয়োঙ্গা জেলার ক্রিমিনাল তদন্ত কর্মকর্তা ইসাক মুগেরা বলেন, ওই ইমামের ‘স্ত্রী’ যখন থানায় আসে তার পড়নে হিজাব ছিল।

ইসাক মুগেরা আরও জানান, এরপর জেলে ঢোকানোর আগে যখন ইমামের ‘স্ত্রী’কে নারী পুলিশ সার্চ করছিল তখন তারা আশ্চর্য হয়ে যান। ওই নারী পুলিশ আবিষ্কার করেন, ইমামের ওই ‘স্ত্রী’ বক্ষ বন্ধনীতে কাপড় পেঁচিয়ে রেখেছিল যাতে বাইরে থেকে দেখতে নারীর স্তনের মতো দেখায়।

এরপর আরও সার্চ করা হলে, পুলিশেরা পুরোপুরি বুঝতে পারে ইমামের ওই স্ত্রী আসলে একজন ছেলে। প্রতারণা করতেই তিনি এমন কাজ করেছেন। এই সংবাদ ওই ইমামকে জানালে তিনি হতবাক হয়ে যান।

পুলিশি তদন্তে আরও জানা যায়, ওই ব্যক্তির নাম রিচারড (২৭)। তিনি ইমামের টাকা আত্মসাৎ করতে প্রতারণা করে বিয়ে করেছেন। সূত্র : ডেইলি মনিটর

পিডিএসও/হেলাল

সর্বাধিক পঠিত