১ম দিন ৬৩ পুরোনো গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা : ১৪টির কাগজ জব্দ

প্রকাশ : ১৯ নভেম্বর ২০১৭, ১৮:১৬ | আপডেট : ১৯ নভেম্বর ২০১৭, ১৮:২০

হাসান ইমন

২০ বছরের বেশি পুরোনো এবং মেয়াদোত্তীর্ণ গাড়ির বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। আজ রোববার দুপুর ১২টা থেকে অভিযান শুরু হয়। ৩ ভাগে বিভক্ত হয়ে এই অভিযান চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। অভিযানের প্রথম দিনেই ৬৩টি মামলা, এক লাখ ২৭ হাজার ৬০০ টাকা জরিমানা, দুটি গাড়ি ডাম্পিং ও ১৪টি গাড়ির কাগজ জব্দ করা হয়। এদিকে অভিযানের ফলে প্রভাব পড়ে গণপরিবহন চলাচলে। ফলে নগরীর সড়ক ছাপিয়ে অলি-গলিতে দেখা দেয় যানজট। এ অভিযানে ডিএসসিসিকে সহযোগিতা করছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সংস্থা (বিআরটিএ) ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। 
নগরীর গোলাপশাহ মাজার ও খিলগাঁও খিদমাহ মেডিক্যাল সেন্টার সংলগ্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন বিআরটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুনিবুর রহমান ও মাজহারুল ইসলাম। এ ছাড়া মতিঝিল সিটি সেন্টার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন ডিএসসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইলিয়াস মিয়া। 
ডিএসসিসি জানিয়েছে, অতিরিক্ত যাত্রী নেওয়া, বাসের আসন নোংরা-ভাঙাচোরা থাকা এবং ভাড়ার তালিকা, রুট পারমিট, রেজিস্ট্রেশন ও ট্যাক্স টোকেন না থাকাসহ বিভিন্ন অপরাধে ৬৩টি মামলা ও জরিমানা করা হয়। এ ছাড়া ২০ বছরের পুরোনো গাড়ি হওয়ায় দুটি গাড়িকে ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয়েছে। আগামী ১৪ কর্মদিবস পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ অভিযান চলবে বলে জানানো হয়। 
এ বিষয়ে অভিযানের প্রধান সমন্বয়ক ও ডিএসসিসির প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম চৌধুরী প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, লাইসেন্সবিহীন গণপরিবহনচালক, পুরোনো ও মেয়াদোত্তীর্ণ যানবাহনের জন্য প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। এতে মানুষের জীবন হুমকির মুখে পড়েছে। এ ছাড়া যত্রতত্র যানবাহন পার্ক করায় শহরে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। গণপরিবহন ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা না আসা পর্যন্ত এ অভিযান চলবে। তিনি বলেন, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও বিআরটিএর আইন অনুযায়ী নূন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা না থাকলে গণপরিবহন চালকদের আইনের আওতায় আনা হবে। পরিবহন শ্রমিকদের পক্ষে কেউ বাধা দিলে তাকে ছাড় দেওয়া হবে না।
কামরুল ইসলাম আরো বলেন, পরিবহন শ্রমিকদের নূন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা না থাকায় তারা বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালান। এতে প্রতিদিনই গণহারে মানুষকে প্রাণ দিতে হয়। এ ছাড়া তারা যাত্রীদের সঙ্গে ভালো ব্যবহারও করেন না। এসব অনিয়ম বন্ধে সবার আগে পরিবহন মালিকদের সচেতন হতে হবে।
মতিঝিল সিটি সেন্টার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন ডিএসসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইলিয়াস মিয়া। তিনি বলেন, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও রুট পারমিট না থাকায় ২৬ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়। এ ছাড়া একটি গাড়িকে ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয়েছে। বিভিন্ন কারণে ২০টি মামলা হয়েছে।  জব্দ করা গাড়িটি ট্রাফিক পুলিশের ডাম্পিং স্টেশনে পাঠানো হয়েছে। আজ সোমবার যথারীতি আবার অভিযান শুরু হবে।
এদিকে অভিযানের ফলে সাধারণ মানুষের যাতায়াতের ওপর কোনো ধরনের প্রভাব পড়েনি। গতকাল দিনভর দুঃসহ যানজটে রাজধানীর বেশির ভাগ এলাকা অচল হয়ে পড়ে। স্থবির হয়ে পড়েছিল জীবনযাত্রা। প্রধান প্রধান সড়ক জুড়েই ভয়াবহ যানজট, তা ছড়িয়ে পড়ে অলিগলি মহল্লাতেও। নগরীর এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে যাতায়াতে পুরোটা দিন লেগে যায়। বাস-মিনিবাস, প্রাইভেটকার, রিকশার চাপে যাতায়াতে স্থবির হয়ে পড়েছিল গুলিস্তান, কাকরাইল, মতিঝিল, মালিবাগ, মৌচাক, শাহবাগসহ নগরীর বিভিন্ন এলাকা। 
উল্লেখ্য, গত ৫ মার্চ থেকে টানা এক মাস অভিযান পরিচালনা করে সংস্থাগুলো। ওই অভিযানে টানা এক মাসের অভিযানে ৭২ চালককে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়া এক হাজার ১৮৮টি মামলা, ২৬ লাখ এক হাজার ৫০ টাকা জরিমানা ও ৬৫টি বাস-মিনিবাস ডাম্পিংয়ে পাঠিয়েছেন। 

পিডিএসও/মুস্তাফিজ