আদার দাম বেড়েছে কেজিপ্রতি ৭০ টাকা

প্রকাশ : ০৭ জুন ২০১৯, ১৫:১৪

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীর বড় কাঁচাবাজার কারওয়ান বাজার। এখানে পাইকারি ও খুচরা- দু’ভাবে শাক-সবজি বিক্রি হয়। শুক্রবার  কারওয়ান বাজার ঘুরে পেঁয়াজ, হল্যান্ড আলু, আদা, রসুন, মরিচ, করলা, চিচিঙ্গা, ঢ্যাঁড়স ও শসার পাইকারি দরদামের খোঁজ নেয়া হয়।

তাতে দেখা গেছে, চীনা ও ভারতীয় আদার দাম সবচেয়ে বেশি বেড়েছে। রোজার সময়ের তুলনায় এখন চীনা আদা প্রতি কেজিতে পাইকারি দামই বেড়েছে ৬০ থেকে ৭০ টাকা। ভারতীয় আদার দাম বেড়েছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা। তবে দেশি আদার দাম একই আছে।

এ ছাড়াও পাইকারি দাম বেড়েছে হল্যান্ড আলু, শুকনা মরিচের। স্থিতিশীল আছে পেঁয়াজ ও শুকনো হলুদের দাম। শবজির মধ্যে হাইব্রিড করলা ও ঢ্যাঁড়সের দাম বেড়েছে, স্থিতিশীল আছে চিচিঙ্গার দাম এবং অর্ধেকে নেমে এসেছে শসার দাম।

আড়তদাররা বলছেন, ঈদের কারণে স্থানীয় বাজার থেকে মালামাল আসছে না। অন্যদিকে ক্রেতাও কম। তাই তারা মালামালের দাম কিছুটা বাড়িয়ে দিয়ে বিক্রি করছেন।

প্রতি কেজি চীনা আদা ১৬০ টাকা, ইন্ডিয়ান আদা ১২০ থেকে ১৩০ টাকা, দেশি আদা ২০০ থেকে ২২০ টাকায় পাইকারি বিক্রি হচ্ছে। রমজানে চীনা আদা ৯০ থেকে ১০০ টাকা, ভারতীয় ৮০ থেকে ৯০ টাকা এবং দেশি আদা ১৯০ থেকে ২০০ টাকা কেজি ছিলো।

অর্থাৎ পাইকারিভাবেই চীনা আদা কেজি প্রতি ৬০ থেকে ৭০ টাকা বেড়েছে, ভারতীয় আদা ৪০ থেকে ৫০ টাকা বেড়েছে এবং দেশি আদার দাম প্রায় একই আছে।

পিডিএসও/রি.মা