পদ্মা সেতু : রোববার বসনো হবে ৩য় স্প্যান

প্রকাশ : ০৯ মার্চ ২০১৮, ২২:০৩

অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অবকাঠামো নির্মাণ প্রকল্প স্বপ্নের পদ্মা সেতুতে তৃতীয় স্প্যান বসানো হবে আগামী রোববার। আজ শুক্রবার এই স্প্যানটি প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। প্রায় ৩ হাজার টন ওজনের এবং ১৫০ মিটার লম্বা স্প্যানটি নিয়ে ভারী একটি ক্রেন আজ শুক্রবার মাওয়া থেকে জাজিরা প্রান্তের দিকে রওনা দিয়েছে। এই স্প্যান বসানোর মধ্যদিয়ে সেতুর ৪৫০ মিটার দৃশ্যমান হবে। পদ্মা সেতু প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী জানিয়েছেন, কোন সমস্যা না থকালে আগামী রোববার তৃতীয় স্প্যানটি বসানো হতে পারে।
সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, এই স্প্যানটি বসানো হবে জাজিরা প্রান্তের ৩৯ ও ৪০ নম্বর খুঁটির উপর। ৪০ নম্বর খুঁটির কাজ শেষ করে স্প্যান বসানোর জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এই রকম ৪১টি স্প্যান জোড়া দিয়েই তৈরি হবে পুরো পদ্মা সেতু। গত বছর অক্টোবরে প্রথম ও গত ২৮ জানুয়ারি দ্বিতীয় স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতুর ৩০০ মিটার দৃশ্যমান হয়েছে জাজিরা প্রান্তে।
আজ দুপুর ১২টার দিকে মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে স্প্যানটি নিয়ে ৩ হাজার ৬০০ টন ধারণ ক্ষমতার তিয়ান-ই ক্রেনটি যাত্রা শুরু করেছে। এর আগে সকাল থেকেই খুঁটিনাটি বিষয়গুলো পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়। মাওয়া প্রান্ত থেকে ক্রেনটি চালিয়ে নির্ধারিত স্থানে পৌঁছাতে সময় লাগতে পারে ২ দিন। পরে স্প্যানটি খুঁটিতে তোলার প্রক্রিয়া শুরু হবে। পুরো কাজটি হবে ভাসমান ওই ক্রেন আর প্রযুক্তির সাহায্যে।
তারও আগে ৩৭-৩৮ নম্বর খুঁটিতে প্রথম ও ৩৮-৩৯ নম্বর খুঁটিতে দ্বিতীয় স্প্যান বসানো হয়েছে। ৩৭, ৩৮, ৩৯ ও ৪০ নম্বর খুঁটির অবস্থান হচ্ছে শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার নাওডোবা এলাকার পদ্মা নদীর দক্ষিণ তীর সংলগ্ন। সেতু বিভাগের (মূল সেতু) সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর বলেন, একটি ভারী ক্রেন স্প্যানটি নিয়ে জাজিরা প্রান্তের দিকে যাত্রা শুরু করেছে। আশা করছি, শনিবার সন্ধ্যার মধ্যেই স্প্যানটি ৩৯ ও ৪০ নম্বর খুঁটির কাছে পৌঁছে যাবে। তার পরই এটি খুঁটিতে তোলার প্রক্রিয়া শুরু হবে।
পদ্মা সেতু প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান আবদুল কাদের বলেন, ভাসমান ক্রেনের সাহায্যে স্প্যানটি জাজিরা প্রান্তে নেওয়া হচ্ছে। স্প্যানটি খুঁটির কাছে পৌঁছানোর পরই এটি ওই ক্রেনের সাহায্যে ওপরে তোলার কাজ শুরু হবে। আশা করছি, রোববরের মধ্যেই খুঁটিতে স্প্যানটি বসানো হবে। তখন পদ্মা সেতুর ৪৫০ মিটার দৃশ্যমান হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

পিডিএসও/মুস্তাফিজ