বাণিজ্যমেলার উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী

‘নতুন বাজার ও নিজেদের পণ্য রফতানির উদ্যোগ নিন’

প্রকাশ : ০১ জানুয়ারি ২০১৮, ১২:৩৪ | আপডেট : ০১ জানুয়ারি ২০১৮, ১৫:৪৮

অনলাইন ডেস্ক
ফাইল ছবি

বাংলাদেশের বাণিজ্য সম্প্রসারণ ও নতুন বাজার সৃষ্টির লক্ষ্যে কাজ করার জন্য ব্যবসায়ীদের আহ্বা্ন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেইসঙ্গে প্রতিযোগী দেশগুলোর সঙ্গে ব্যবসাবাণিজ্যে টিকে থাকতে হলে দক্ষতা বাড়ানোর কথা বলেন। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মাসব্যাপী ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘নিজেদের সচ্ছলতার কথা ভাবলেই শুধু হবে না। পাশাপাশি মানুষ যাতে আপনাদের পণ্য কিনতে পারে, সেটার কথাও ভাবতে হবে। শুধু নিজের দেশ নয়, বাইরের দেশ এমনকি নতুন নতুন বাজার এবং সেখানে নিজেদের পণ্য রফতানির জন্য উদ্যোগ নিতে হবে।’ এ জন্য প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশ নানাভাবে যোগাযোগ ব্যবস্থা জোরদার করছে বলেও উল্লেখ করেন শেখ হাসিনা।’

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার গ্রামের মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়নের ওপর বিশেষ জোর দিচ্ছে। ‘গ্রামের মানুষের আর্থিক সচ্ছলতা যদি ভালো হয়, তাহলে তাঁরা আপনাদের উৎপাদিত পণ্য ক্রয় করতে পারবে।

শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাড়ে তিন বছর ক্ষমতায় ছিলেন। এর মধ্যেই যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশের উন্নয়নকে গতিশীল করেছিলেন। যুদ্ধের পর শিল্পকারখানা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। বঙ্গবন্ধু সেগুলো চালু করার উদ্যোগ নিয়েছিলেন। যুদ্ধের সময় অনেক শিল্প কারখানার মালিক চলে গিয়েছিলেন। তাদের মধ্যে যারা দেশে ফেরত এসেছিলেন তাদের শিল্পকারখানা ফেরত দিয়েছিলেন। শুধু তাই নয়, নতুন শিল্প কারখানা গড়ে তোলার উদ্যোগ নিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু।

‘মা যেমন রুগ্ন শিশুকে সেবা করে সুস্থ করে তোলেন। তেমনিভাবে বঙ্গবন্ধু যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশকে গড়ে তোলার জন্য কাজ করেছিলেন, বলেন শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী শিল্পের পাশাপাশি দেশের কৃষিভিত্তিক শিল্পের ওপরও গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, ‘কৃষি আমাদের ভিত্তি। কিন্তু শিল্পের সম্প্রসারণও আমাদের ঘটাতে হবে। শিল্প ছাড়া না হলে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির চাকা শক্তিশালী হবে না। কিন্তু কৃষিভিত্তিক শিল্প গড়ে তা দিয়ে পণ্য তৈরি করে বাইরে রপ্তানি করতে হবে। রপ্তানি আয় বাড়াতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ হয়েই আমরা ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত হয়ে ২০২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করতে চাই। আর ২০৪১ সালে আমরা দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হতে চাই।’

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের পাশের মাঠে আজ থেকে শুরু হওয়া এ মেলা চলবে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) যৌথ এর আয়োজন করেছে।

পিডিএসও/তাজ