উদ্বোধনী মঞ্চে রোনালদোর পাশে বিতর্কিত রবিও

প্রকাশ : ১৪ জুন ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক

দুই বছর আগে তার গানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারির দাবিতে সরব হয়েছিল রাশিয়ার সংবাদমাধ্যম। হয়েছিল নানা প্রতিবাদ সভাও। বিশ্বখ্যাত পপ গায়কের প্রকাশিত অ্যালবাম ‘দ্য বুটস ইন’-এ এমন কিছু শব্দ ব্যবহার করা হয়েছিল যাতে অপমানিত হয়েছিলেন লেনিনের দেশের মানুষ।

গ্রেট ব্রিটেনের সেই বিতর্কিত পপ গায়ক রবি উইলিয়ামসকেই ফিরিয়ে আনা হচ্ছে রাশিয়ার বৃহত্তম ক্রীড়াযজ্ঞ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী মঞ্চে। লুঝনিকি স্টেডিয়ামের ৮০ হাজার দর্শক এবং বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত আজ ছড়িয়ে পড়বে তার সুরের মূর্চ্ছনায়। রাশিয়া বনাম সৌদি আরব ম্যাচের আগে আধ ঘণ্টার জন্য সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠান হবে।

আগের সব বিশ্বকাপের সূচির সামান্য বদল ঘটিয়ে ফিফার পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানের যে তালিকা ও তথ্য প্রকাশিত হয়েছে তাতে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের সাবেক তারকা রোনালদোই একমাত্র ফুটবলার হিসাবে আলোকিত করবেন মঞ্চ। বিশ্বখ্যাত পপ তারকা উইলিয়াম ছাড়াও রাশিয়ার যুব সমাজের হার্ট থ্রব সোপ অপেরার জনপ্রিয়তম গায়িকা আইদা গ্যারিফ্লুনাকেও দেখা যাবে গানে গানে মঞ্চ মাতাতে। সঙ্গে থাকবে রাশিয়ার সংস্কৃতির ছোঁয়া।

মস্কো অলিম্পিকের পর বহু দিন রাশিয়ায় আর কোনো ক্রীড়াযজ্ঞ হয়নি। ফলে বিশ্বকাপের মতো অনুষ্ঠান ভ্লাদিমির পুতিনের দেশ কীভাবে সামাল দেয় তা দেখার জন্য মুখিয়ে আছে বিশ্ব। প্রবল সমালোচনা সত্ত্বেও বিতর্কিত উইলিয়ামের অন্তর্ভুক্তি বিশ্বের সামনে রাশিয়াকে উন্মুক্ত করে দেওয়ার প্রকাশ বলেই মনে করা হচ্ছে।

ঘটনা যাই হোক এরই মধ্যে উদ্বোধনী আসরের মঞ্চ লুঝনিকি স্টেডিয়ামের সাজানো গোছানোর কাজ প্রায় শেষ। চলছে শেষ তুলির টান। মাঠের বাইরে ঘাস কেটে ‘রাশিয়া’ শব্দটা ফুটিয়ে তোলা হচ্ছে। টিকিট যারা পাননি তারা যাতে উদ্বোধন অনুষ্ঠান দেখা থেকে বঞ্চিত না হন, সেজন্য বড় বড় পর্দা লাগানো হচ্ছে স্টেডিয়ামের বাইরে।

সাধারণত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেই প্রাথমিকভাবে বোঝা যায় সংগঠকরা কতটা দক্ষতার সঙ্গে টুর্নামেন্ট পরিচালনা করতে পারবেন। সেই আবহে তাই রবি উইলিয়ামস বা আইদারা কতটা জমিয়ে দিতে পারেন সেটা দেখার জন্য উন্মুখ সবাই। দুইজনেই অবশ্য প্রতিশ্রতি দিয়েছেন মোহিত করে দেবেন বিশ্বকে।

রবি যেমন বলেছেন, ‘রাশিয়ায় এসে ফের গান শোনানোর সুযোগ পাচ্ছি এবং সেটা দুর্দান্ত একটি অনুষ্ঠানে এটা আমার কাছে বিরাট ব্যাপার। এটা যেন স্বপ্ন ছোঁয়ার মতো ব্যাপার। আমি এমন কিছু শোনাব যা বিশ্ব মনে রাখবে।’ আর আইদার মন্তব্য, ‘আমার কল্পনাতেও কখনো আসেনি যে বিশ্বকাপের মঞ্চে নিজেকে কোনোদিন মেলে ধরতে পারব। আমাদের দেশে বিশ্বকাপ। সেখানে উদ্বোধনের দিন গান করার সুযোগ। এমন কিছু করতে হবে যে সবাই যাতে মনে রাখে।’

"