ফের মাঠে নামার হুমকি পেলের

এমবাপ্পেকে জানালেন স্বাগত

প্রকাশ : ১৭ জুলাই ২০১৮, ০০:০০

ক্রীড়া ডেস্ক
ama ami

১৯ বছর বয়সী ফুটবলার কাইলিয়ান এমবাপ্পে। বিস্ময়ের জন্মটা দিয়েছেন ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে এসে। শুরুতে তাকে যখন রিয়াল মাদ্রিদ ১৬০ কি ১৭০ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে কেনার প্রস্তাব দিয়েছিল। তখনই সবার নজরে আসে মোনাকোয় খেলা এই বিস্ময় বালক কে, যার জন্য টাকার বস্তা নিয়ে হাজির রিয়াল মাদ্রিদের মতো ক্লাব!

রিয়াল শেষ পর্যন্ত এমবাপ্পেকে কেনেনি। তবে ১৮০ মিলিয়ন ইউরোয় মোনাকো থেকে তাকে ধার (লোন) নিয়েছে পিএসজি। যারা ২২২ মিলিয়ন ইউরোয় বার্সা থেকে কিনেছে নেইমারকে। পিএসজির হয়ে নিজেকে চেনান এমবাপ্পে। বিশ্বকাপ শুরুর আগে তার ওপর স্পটলাইটটা ছিল অনেক বেশি। তরুণ ফুটবলার হিসেবে বিশ্বকাপে কী করেন সেটাই ছিল দেখার।

সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার ব্রাজিলের কালো মানিক পেলেকে কিন্তু চিনিয়েছে বিশ্বকাপই। ১৯৫৮ সুইডেন বিশ্বকাপ দিয়েই সারা বিশ্বের নজরে আসেন তিনি। আর কাইলিয়ান এমবাপ্পে বিশ্বকাপে পা রাখার আগেই তোলপাড় করা এক ফুটবলার। রাশিয়ায় পা রাখার পর পাদপ্রদীপের আলো পুরোটাই নিজের দিকে টেনে নিতে সক্ষম হলেন এই তরুণ প্রতিভা ।

মাত্র ১৯ বছর বয়সেই ফ্রান্সের মতো দলের ১০ নম্বর জার্সি পাওয়া চাট্টিখানি কথা নয়। কিন্তু কোচ দিদিয়ের দেশম জানতেন, তার মধ্যে কী আছে। মাত্র ১৯ বছর বয়স হলেও কতটা প্রতিভাবান তা এমবাপ্পের খেলা না দেখলে বিশ্বাস করাই কঠিন। গ্রুপ পর্বে যাই খেলুন না কেন নকআউটে এসে এমবাপ্পে নিজেকে যেন পুরোপুরি মেলে ধরলেন।

লিওনেল মেসিকে ম্লান করে দিয়ে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে করলেন জোড়া গোল। এক্ষেত্রেই পেলেকে ছুঁয়ে ফেলার কাজটি করলেন ফরাসি এই তরুণ। পেলের পর প্রথম টিনএজার হিসেবে বিশ্বকাপের কোনো ম্যাচে জোড়া গোল করলেন এমবাপ্পে। ৬০ বছর পর পেলের নামের সঙ্গে উচ্চারিত হলো কারো নাম। এটা তো কম গৌরবের নয়!

পেলে কিন্তু হুমকিই মানে করছেন ফ্রান্সের এই তরুণ ফুটবলার এমবাপ্পেকে। যেভাবে ফরাসি তারকা খেলে যাচ্ছেন তাতে পেলের রেকর্ড না আবার ভেঙে দেন তিনি! এই চিন্তায় যেন ঘুম হারাম পেলের। ফরাসি তারকাকে উল্লেখ করেই টুইটারে পেলে লিখলেন তার সেই ভয় মেশানো কথাবার্তা।

সেখানে পেলের লিখলেন, ‘যদি এভাবেই একের পর এক আমার রেকর্ডে ভাগ বসাতে থাকে এমবাপ্পে তাহলে নিশ্চিত আমার ধুলো পড়া বুটগুলো পরিষ্কার করে আবারও মাঠে নামতে হবে। এভাবে একের পর এক রেকর্ড গড়তে থাকলে নিশ্চিত ধুলো পড়া বুট পরিষ্কার করার জন্য আমাকে আবারও ডাস্ট হাতে নিতে হবে।’

"