কানাডায় বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি

খুনি নূর চৌধুরীকে ফেরত দিতে কানাডার ফেডারেল মন্ত্রীর আশ্বাস

প্রকাশ : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

কানাডায় সফররত বাণিজ্যমন্ত্রী কানাডার ফেডারেল মন্ত্রী বিল ব্লেয়ারকে বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত খুনি নূর চৌধুরী দীর্ঘদিন কানাডায় অবস্থান করছেন। তাকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করলে বাংলাদেশ খুশি হবে। অবিলম্বে নূর চৌধুরীকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করা হোক। এ বিষয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী কানাডার ফেডারেল মন্ত্রী বিল ব্লেয়ারের সহযোগিতা কামনা করেন। এ সময় ফেডারেল মন্ত্রী বিল ব্লেয়ার মিয়ানমার কর্তৃক নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আশ্রয় দেওয়ার জন্য বাংলাদেশকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে স্বীকৃতি দেওয়া ছিল কানাডার জন্য গর্বের বিষয়। বঙ্গবন্ধুর খুনি নূর চৌধুরীকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর আশ্বাস দিয়ে বলেন, বিষয়টি কানাডার আইন ও বিচারমন্ত্রী এবং বহিরাগমন ও নাগরিকত্ববিষয়ক মন্ত্রীর কাছে তুলে ধরবেন। তিনি বাংলাদেশের সঙ্গে কানাডার বাণিজ্য বিষয়গুলো তুলে ধরেন। এ সময় বাংলাদেশের পক্ষ থেকে প্রত্যক্ষ ছাত্র ভর্তির সুযোগ সৃষ্টি, বাংলাদেশে কানাডিয়ান হাইকমিশনের ভিসা সেন্টার পুনঃস্থাপন, ফেডারেল সরকারের বাংলাদেশ সম্পর্কিত ভ্রমণ সতর্কীকরণ প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি গত বৃহস্পতিবার কানাডার অটোয়ায় ফেডারেল মন্ত্রী বিল ব্লেয়ারের সঙ্গে একান্ত বৈঠকে এসব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, বাংলাদেশ সরকার ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

এজন্য অবকাঠামো উন্নয়নকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। পদ্মা সেতু নির্মাণ ও মেট্রোরেলের মতো বৃহৎ প্রকল্পগুলোকে খুবই গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে সরকার। এ ধরনের প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে দেশের অর্থনীতির চাকা গতিশীল হবে এবং জিডিপির প্রবৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বর্তমান বাংলাদেশ সরকার তথ্য প্রযুক্তি খাতকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে। এখাতের সব ধরনের মূলধনী যন্ত্রপাতি আমদানিকে করমুক্ত করেছে। এ খাতকে উৎসাহিত করতে বাংলাদেশ সরকার হাইটেক পার্ক ও তথ্যপ্রযুক্তি কেন্দ্র স্থাপন করেছে। সেখানে বিদেশি বিনিযোগকে অবারিত করেছে। বিনিয়োগকারীদের বিশেষ সুযোগ-সুবিধা প্রদান করছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি ওই দিন (৫ সেপ্টেম্বর) কানাডার অটোয়ায় আমেরিকার অর্থনৈতিক ফোরাম (আইইএফএ) আয়োজিত ১৩তম টরন্টো গ্লোবাল ফোরামে ‘নব্য অর্থনীতির নেতৃত্ব দান’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্যানেল বক্তার বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। একই সেশনের ফিলিপাইনের উপ-রাষ্ট্রপতি লেনি রব রেডো সাম্প্রতিক বিশ্বের নারীর ক্ষমতায়ন সংক্রান্ত একটি প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। এরপর নতুন প্রজন্মের অবকাঠামো শীর্ষক প্যানেল আলোচনায় বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বক্তব্য প্রদান করেন।

"