বুড়িমারী স্থলবন্দরের অবরোধ প্রত্যাহার

প্রকাশ : ১২ জুন ২০১৯, ০০:০০

লালমনিরহাট প্রতিনিধি

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থলবন্দরে অতিরিক্ত ফি আদায়কে কেন্দ্র করে বন্দরের উপপরিচালক (ডিডি) মনিরুল ইসলামের অপসারণ ও সড়ক অবরোধ কর্মসূচি ২৪ ঘণ্টা পর প্রত্যাহার করে নিয়েছে পরিবহন শ্রমিকরা। এ ব্যাপারে পাটগ্রাম সহকারী কমিশনার (ভূমি) দীপক কুমার দেব শর্মাকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের দিকে বুড়িমারী স্থলবন্দর আমদানি-রফতানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও পাটগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রুহুল আমীন বাবুলের আশ^াসে অবরোধ তুলে নেয় শ্রমিকরা।

স্থানীয় ও স্থলবন্দর সূত্রে জানা গেছে, ভারত, নেপাল ও ভুটানের যাত্রীরা প্রতিদিন লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থলবন্দর হয়ে পারাপার হন। পাসপোর্টধারী যাত্রী পারাপারে বন্দর ব্যবহারের জন্য সরকার নির্ধারিত ৪২ টাকা ৭৫ পয়সা ফি বন্দর কর্তৃপক্ষকে পরিশোধ করতে হয়। পাসপোর্টধারী যাত্রীরা দীর্ঘদিন ধরে ওই ফি পরিশোধ করে এলেও গত সোমবার দুপুরে স্থলবন্দরের ডিডি মনিরুল ইসলাম যাত্রী প্রতি ৪২ টাকা ৭৫ পয়সার জায়গায় ১০০ টাকা দিতে হবে বলে বন্দরের যাত্রী পরিবহনে নিযুক্ত পরিবহন শ্রমিকদের জানান।

অতিরিক্ত এ টাকা দিতে অস্বীকার করায় পরিবহন শ্রমিকদের লাঞ্ছিত করা হয়। এ ঘটনায় বন্দরের ডিডি মনিরুল ইসলামের অপসারণ দাবি করে বুড়িমারী স্থলবন্দর নৈশবাস কোচ-মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়ন তাৎক্ষণিক সড়ক অবরোধ করে। ফলে বুড়িমারী স্থলবন্দরের ওপারে ভারতের চ্যাংড়াবান্ধা স্থলবন্দরে পণ্যবাহী কয়েকশত গাড়ি আটকা পড়ে যায়।

"