বাজেটে সমান প্রণোদনা চান পোশাক খাতের উদ্যোক্তারা

প্রকাশ : ০৯ জুন ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

আসছে বাজেটে নতুন-পুরোনো বিবেচনায় না নিয়ে সব বাজারে রফতানিতে সমান নগদ প্রণোদনা চান পোশাক খাতের উদ্যোক্তারা। সেই সঙ্গে করপোরেট করও কমাতে চান তারা। আর উন্নয়ন কর্মীরা গুরুত্ব দিতে চান এ খাতের শ্রমিকদের মৌলিক চাহিদা পূরণে। তবে কর সুবিধা ঢালাওভাবে না বাড়িয়ে উৎপাদন সক্ষমতা বৃদ্ধিতে বিশেষ তহবিল গঠন করে কাজ করার পরামর্শ অর্থনীতিবিদদের।

চার দশকের পথচলায় বর্তমানে রফতানি আয়ের পাঁচ ভাগের চার ভাগের বেশি জোগান দেয় তৈরি পোশাকশিল্প খাত। সবুজ শিল্পায়নের পথেও অনন্য নজির রয়েছে এ খাতের উদ্যোক্তাদের। বিশ্বসেরা ১০টি কারখানার মধ্যে ৭টিরই মালিক তারা।

নানা চড়াই-উতরাই পার করে তৈরি পোশাকে বিশ্ববাজারে দ্বিতীয় রফতানিকারকের তকমা ধরে রাখা এ খাতের উদ্যোক্তাদের বর্তমানে উৎসে কর দিতে হয় শূন্য দশমিক ২৫ শতাংশ হারে।

আর সবুজ কারখানার স্বীকৃতি পাওয়া মালিকরা করপোরেট কর ১০ শতাংশ হারে দিলেও বাকিদের জন্য তা ১২ শতাংশ। আবার রফতানির ক্ষেত্রে অপ্রচলিত বাজার বিবেচনায় ৪ শতাংশ আর ইউরোপের বাজারে শর্তসাপেক্ষে এ খাতের উদ্যোক্তারা পান ২ শতাংশ নগদ প্রণোদনা। বাজার প্রতিযোগিতায় সক্ষমতা বাড়াতে কর সুবিধা বাড়ানোর দাবি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর।

বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হক বলেন, প্রথম ফ্যাশন দরকার, তারপর কোয়ালিটি ফ্যাশন দরকার। এটা কীভাবে সম্ভব? করপোরেট ট্যাক্স কমাতে বলেছি আমরা। ১২ টাকার জায়গায় ১০ টাকা করতে বলা হয়েছে। চট করেই কিন্তু নতুন মার্কেট খোলে না। এ খাতের চলমান সংস্কারের প্রশংসা করে উন্নয়ন কর্মীদের চাওয়া, এ খাতের শ্রমজীবী মানুষের মৌলিক অধিকার রক্ষা হোক সহজে।

 

"