এক পরিচয়পত্রে মিলবে ৪টি

রাজশাহীতে ট্রেনের টিকিটে এনআইডি বাধ্যতামূলক

প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

বিশেষ প্রতিবেদক, রাজশাহী

রাজশাহী রেলওয়ের স্টেশনে ট্রেনের টিকিট কিনতে বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) প্রদর্শন। তবে যাদের এনআইডি হয়নি তারা জন্ম নিবন্ধন নম্বর ব্যবহার করতে পারবেন। আর রাজশাহী-ঢাকা রুটে চলাচলকারী আন্তঃনগর ট্রেন ধূমকেতু ও সিল্কসিটি ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য আগামী ১৫ এপ্রিল থেকেই এনআইডি প্রদর্শন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এছাড়া সুন্দরবন এক্সপ্রেস, একতা এক্সপ্রেস, নীলসাগর এক্সপ্রেস, রংপুর এক্সপ্রেস, সীমান্ত এক্সপ্রেস, উপবন এক্সপ্রেস, উদয়ন এক্সপ্রেস, হাওর এক্সপ্রেস, তিস্তা এক্সপ্রেস ও অগ্নিবীনা এক্সপ্রেস ট্রেনগুলোর টিকিটের জন্যও এনআইডি লাগবে। খুব শিগগিরই সব ট্রেনের জন্য নতুন এ নিয়ম কার্যকর হতে যাচ্ছে বলে এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

ওই বিজ্ঞপ্তির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১৫ এপ্রিল থেকে (৭৬৯/৭৭০ নং) ধূমকেতু এক্সপ্রেস ও (৭৫৩/৭৫৪ নং) সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ট্রেনে ভ্রমণইচ্ছুক যাত্রীদের টিকিট ক্রয়ের ক্ষেত্রে এনআইডি/জন্ম নিবন্ধন নম্বর ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ই-টিকিটের ক্ষেত্রে যাত্রীদের প্রিন্ট কপি ও ফটো আইডি প্রদর্শন করা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আর একটি এনআইডি দিয়ে সর্বোচ্চ চারটি টিকিট কেনা যাবে।

এ বিষয়ে পশ্চিম রেলওয়ে রাজশাহীর চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার (সিসিএম) এম এম শাহনেওয়াজ প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সারা দেশের সব সেক্টরেই কাজ শুরু হয়েছে। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ কিছুটা দেরিতে হলেও কাজ শুরু করেছে। এরই মধ্যে গত ২০ মার্চ থেকে রাজশাহী-ঢাকা রুটে চলাচলকারী পদ্মা এক্সপ্রেস টেনের টিকিট কাটার জন্য এনআইডি বাধ্যতামূলক করে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। কোনো সংকট মুহূর্তে যাত্রীদের পরিচয় নিশ্চিতসহ বিভিন্ন কারণে সব ট্রেনের টিকিট কাটতেই বিষয়টি আমলে নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। যার ধারাবাহিকতায় খুব শিগগিরই ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ করতে রাজশাহীসহ দেশের সব স্টেশনেই এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধন নম্বর ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে বলে জেনেছি। এছাড়া অনলাইনে ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ করতেও একই নির্দেশনা পালন বাধ্যতামূলক।

রাজশাহী রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার আবদুল করিম বলেন, কর্তৃপক্ষের ঘোষণা মোতাবেক দূরপাল্লার ট্রেনগুলোতে ১৮ বছরের নিচের যাত্রীদের জন্য জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য ট্রেনেও এ নতুন নিয়মের আওতায় আসবে।

রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ রেলওয়ের ওয়েবসাইট, ই-টিকিটিং ওয়েবসাইট, রেলওয়ে মোবাইল অ্যাপ ও রেলওয়ে স্টেশন কাউন্টারে এনআইডি/জন্ম নিবন্ধনসহ নাম রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী একটি এনআইডি দিয়ে সর্বোচ্চ চারটি টিকিট কেনা যাবে। তবে কোনো কোনো ক্ষেত্রে এনআইডির ফটোকপিও ব্যবহার করা যাবে। পশ্চিমাঞ্চল জোনে ট্রেনে যাতায়াতকারী সাধারণ যাত্রীদের জন্য এমন একটি বিজ্ঞপ্তি এরই মধ্যে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে টানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এনআইডি ছাড়াও এখন থেকে এসব আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট কাটতে হলে দিতে হবে নাম, মোবাইল নম্বর ও জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্মসনদ নম্বর। ই-টিকিটের ক্ষেত্রে নিজস্ব আইডি থেকে সংগৃহীত টিকিটের প্রিন্ট কপি ও ফটো আইডি প্রদর্শন করা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। অপরের আইডি থেকে কেনা টিকিটের ক্ষেত্রে ট্রেন ছাড়ার আগে অবশ্যই স্টেশন থেকে মূল টিকিট সংগ্রহ করতে হবে। আর কোনো অবস্থাতেই মোবাইল ফোনের এসএমএস দেখিয়ে ট্রেনে ভ্রমণ করা যাবে না। যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তাদের আনতে হবে জন্মসনদ।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের সুপারিনটেনডেন্ট আমজাদ হোসেন বলেন, ‘বর্তমানে কেবলমাত্র আন্তঃনগর ট্রেন পদ্মার টিকিটের জন্য এনআইডি বা জন্মসনদ লাগছে। আগামী ১৫ এপ্রিল থেকে এ রুটের বাকি দুটি আন্তঃনগর ট্রেনের জন্যও এনআইডি বা জন্মসনদ লাগবে। প্রথমে এটি পরীক্ষামূলক হলেও দ্রুত সময়ের মধ্যে বিভিন্ন সমস্যা কাটিয়ে সবগুলো আন্তঃনগর ট্রেনে এ নিয়ম চালু হবে।

"