ইআরডিকে আরো গতিশীল হতে হবে : অর্থমন্ত্রী

প্রকাশ : ১০ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সবাইকে অত্যন্ত শক্ত অবস্থানে থেকে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ও বিদেশি ঋণ সংস্থার সঙ্গে নেগোসিয়েশন করতে হবে, যেন বাংলাদেশের স্বার্থ সমুন্নত থাকে। গতকাল রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সঙ্গে পরিচিতি সভায় মিলিত হয়ে অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ইআরডির কর্মকর্তাদের শক্ত অবস্থানে থেকে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ও বিদেশি ঋণ সংস্থার সঙ্গে নেগোসিয়েশন করতে হবে, যেন বাংলাদেশের স্বার্থ সমুন্নত থাকে। এ ক্ষেত্রে ঋণচুক্তির শর্তসমূহ বাংলাদেশের অনুকূলে রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি বলেন, ইআরডিকে সারা বিশ্বে বাংলাদেশের ঋণ সক্ষমতার বিষয়টি তুলে ধরতে হবে। বাংলাদেশ আজ পর্যন্ত কোনো ঋণের একটি ইনেস্টলমেন্ট প্রদানে এক ঘণ্টার জন্যও বিলম্ব করেনি। বাংলাদেশের এক্সটার্নাল ডেবিট জিডিপি রেশিও মাত্র ১৩ দশমিক ২ শতাংশ। যেখানে ঝুঁকিমুক্ত মাত্রা হলো ৪০ শতাংশ। পৃথিবীতে সর্বনিম্ন এক্সটার্নাল ডেবিট জিডিপি রেশিওর কয়েকটি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ রয়েছে।

অর্থমন্ত্রী কর্মকর্তাদের আহ্বান করেন যেন তারা আমাদের ঋণ সক্ষমতা ধরে রাখেন। তাহলে ভবিষ্যতে দেশের অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় বৈদেশিক অর্থায়ন সহজতর হবে। এ সময় তিনি প্রকল্প বাছাইয়ের ক্ষেত্রে গ্রামীণ জীবনমান উন্নয়নের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ছোট আকারের প্রকল্পে ঋণ সহায়তা প্রদানে নির্দেশনা দেন।

এ সভায় অর্থমন্ত্রীকে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব এ বিভাগের চলমান কার্যক্রম বিষয়ে সংক্ষিপ্ত ব্রিফ করেন এবং অর্থমন্ত্রীর নিকট এ বিভাগের কার্যক্রম আরো গতিশীল ও কার্যকর করার জন্য প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা কামনা করেন।

"