দেশব্যাপী করমেলা শুরু ১৩ নভেম্বর

প্রকাশ : ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

শাহ্জাহান সাজু

করসেবা সাধারণ করদাতাদের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে এবং কর সচেতনতা বাড়াতে প্রতি বছরের মতো এবারও দেশব্যাপী আয়কর মেলা করবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। আগামী ১৩ নভেম্বর থেকে এই করমেলা শুরু হবে। রাজধানী ঢাকাসহ বিভাগীয় শহরে সপ্তাহব্যাপী মেলা চলবে ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত। রাজধানীর মেলা হবে মিন্টো রোডের অফিসার্স ক্লাব প্রাঙ্গণে। এ ছাড়া সব জেলা শহরে চার দিন এবং ৩০টি উপজেলায় দুই দিন মেলা হবে। আর উপজেলা পর্যায়ে গ্রোথ সেন্টারগুলোতে এক দিন ভ্রাম্যমাণ মেলা অনুষ্ঠিত হবে।

প্রতি বছরের মতো করদাতারা এবারের মেলায়ও আয়কর বিবরণীর ফরম থেকে শুরু করে কর পরিশোধের জন্য ব্যাংক বুথও পাবেন। তাদের জন্য মেলায় সহায়তা কেন্দ্রে অপেক্ষা করবেন কর কর্মকর্তারা। একই ছাদের নিচে কর-সংক্রান্ত সব সেবা মিলবে। করদাতা শুধু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সঙ্গে আনলেই চলবে। ২০১০ সালে প্রথমবারের মতো ঢাকা ও চট্টগ্রামে আয়কর মেলার আয়োজন করা হয়। এরপর প্রতি বছরই মেলার পরিধি বেড়েছে।

মেলার সমন্বয়কারী ও এনবিআরের সদস্য (আয়কর প্রশাসন) জিয়াউদ্দিন মাহমুদ প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, প্রতি বছরের মতো এবারও মেলার আয়োজন করা হবে। তবে এবারের মেলার নতুনত্ব হচ্ছে অডিও-ভিডিও সম্প্রচারের মাধ্যমে কর শিক্ষণ প্রদান। করদাতারা এই দূরশিক্ষণ পদ্ধতিতে কর কর্মকর্তাদের বিভিন্ন প্রশ্ন করতে পারবেন। কর সচেতনতা তৈরিতে এই কর শিক্ষণ পদ্ধতির ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে তিনি জানান। তিনি আরো বলেন, করমেলার মাধ্যমে তরুণ ও দেশপ্রেমিক করদাতারা উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন। করমেলার সুনাম দেশের বাইরে ছড়িয়ে পড়েছে। করসচেতনতা তৈরি এবং মানুষকে কর প্রদানে উদ্বুদ্ধ করার ক্ষেত্রে করমেলা আন্তর্জাতিকভাবে রোল মডেল হিসেবে পরিগণিত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

মেলায় নতুন করদাতারা আয়কর বিবরণী জমা দেওয়াসহ ইলেকট্রনিক কর শনাক্তকরণ নম্বর (ই-টিআইএন) নিতে পারবেন। আবার পুনঃনিবন্ধন করে ই-টিআইএন নিতে পারবেন পুরনো করদাতারা। এ ছাড়া ই-পেমেন্টের জন্য পৃথক বুথ থাকবে। মুক্তিযোদ্ধা, নারী, প্রতিবন্ধী ও প্রবীণ করদাতাদের জন্য আলাদা বুথ থাকবে।

এদিকে আগামী ১২ নভেম্বর রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে সেরা করদাতাদের সম্মানিত করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

"