রফতানি উৎসাহিত করতে আসছে বড় প্রণোদনা

উৎসে করহার কমছে দশমিক ১ শতাংশ

প্রকাশ : ২৯ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

রফতানি উৎসাহিত করতে পণ্য রফতানির ক্ষেত্রে রফতানি মূল্যের ওপর উৎসে কর কর্তনের হার কমাতে যাচ্ছে সরকার। গত ২০১৭-১৮ অর্থবছর থেকে এটি দশমিক ১ শতাংশ কমিয়ে শূন্য দশমিক ৬০ শতাংশ করা হচ্ছে। এই হার পাটজাত পণ্য বাদে সব ধরনের পণ্যের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। এছাড়া তৈরি পোশাক শিল্প খাতেও ছাড় দেওয়া হচ্ছে। এ খাতের পণ্য রফতানি থেকে আয়ের ওপর আয়কর হার সর্বোচ্চ ১২ শতাংশ এই অর্থবছরেও বহাল রাখা হচ্ছে। কোনো কারখানা আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত গ্রিন বিল্ডিং সার্টিফিকেশন থাকলে এই হার ১০ শতাংশ রাখা হচ্ছে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এই বিষয়গুলোতে অনুমোদন দিয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪ এর ধারা ৫৩ বি বি ও ৫৩ বি বি বি বি’তে যেসব পণ্যের কথা বলা হয়েছে সেগুলো রফতানির ক্ষেত্রে রফতানি মূল্যের ওপর এক শতাংশ হারে উৎস কর কর্তন প্রযোজ্য। গত ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জন্য পাটজাত দ্রব্য ছাড়া সব পণ্য রফতানির ক্ষেত্রে রফতানি মূল্যের ওপর উৎস কর কর্তনের হার কমিয়ে শূন্য দশমিক ৭০ শতাংশ করা হয়। এ নিয়ে একটি প্রজ্ঞাপনও জারি করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। সে প্রজ্ঞাপনের মেয়াদ গত জুন মাসে শেষ হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে চলতি মাসের শুরুতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এবং বিজিএমইএ এর নেতারা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে রফতানির উৎস কর হার আরো এক ধাপ কমানোর সিদ্ধান্ত হয়। এতে উৎস কর হার শূন্য দশমিক ৬০ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পরবর্তীতে বিষয়টিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মতি দেন। সম্প্রতি অর্থমন্ত্রীও এতে অনুমোদন দিয়েছেন। ফলে এ হার বাস্তবায়নে এখন আর কোনো বাধা থাকল না। এনবিআর খুব শিগগিরই ১৯৮৪ এর ধারা ৫৩ বি বি ও ৫৩ বি বি বি বি’তে উল্লেখিত পণ্য (পাটজাত দ্রব্য ছাড়া) রফতানি মূল্যের ওপর উৎস কর কমিয়ে আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪ এর ৪৪(৪)(বি) এর আওতায় একটি প্রজ্ঞাপন জারি করবে। উল্লেখ্য, পাটজাত দ্রব্য রফতানির ক্ষেত্রে একটি এস, আর, ও এর মাধ্যমে রফতানি মূল্যের ওপর উৎস কর শূন্য দশমিক ৬০ শতাংশ নির্ধারণ করা আছে।

গত অর্থবছর নিটওয়্যার ও ওভেন গার্মেন্ট উৎপাদন ও রফতানিতে নিয়োজিত করদাতার রফতানি আয়ের ওপর আয়কর হারে ছাড় পেয়েছিল। কোম্পানি করদাতার ক্ষেত্রে আয়করের হার ১২ শতাংশ। তবে গত অর্থবছর করদাতার করাখানা আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত ‘গ্রিন বিল্ডিং সার্টিফিকেশন’ থাকলে ওই কারখানায় উৎপাদিত পণ্য রফতানি থেকে আয়ের ওপর আয়কর হার ১০ শতাংশ করা হয়েছিল। যেহেতু এটি গত ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জন্য প্রযোজ্য ছিল, তাই নতুন ২০১৮-১৯ অর্থবছরে এটি কার্যকর হয়নি। এ সুবিধা আবারো বহাল রাখতে যাচ্ছে সরকার। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে এ সুবিধা বহাল রেখে আরো একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হতে পারে। দুইটি বিষয়ই বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রফতানিকারক সংগঠনের (বিজিএমইএ) অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে সরকার বাস্তবায়ন করছে বলে জানা গেছে।

"