খাতভিত্তিক উন্নয়নে পুরস্কৃত করা হবে রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানকে

প্রকাশ : ১৩ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

খাতভিত্তিক উন্নয়নে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিভিন্ন সেক্টর-করপোরেশন ও সংস্থাকে পুরস্কৃত করা হবে। চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে আনুষ্ঠানিকভাবে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে। এর ফলে রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্প কারখানাগুলো উৎপাদনশীলতা বাড়িয়ে বর্তমান সরকার ঘোষিত রূপকল্প-২০২১ ও ২০৪১ বাস্তবায়নে আরো উৎসাহিত হবে। গতকাল রাজধানীর মতিঝিলে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অর্গানাইজেশনের (এনপিও) উদ্যোগে আয়োজিত ‘জাতীয় উৎপাদনশীলতা বার্তা’ এর দ্বিতীয় সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্প সচিব মোহাম্মদ আবদুল্লাহ্ এসব কথা বলেন।

শিল্প সচিব বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে শিল্পসমৃদ্ধ বাংলাদেশ, ২০৩০ সাল নাগাদ টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য অর্জন এবং ২০৪১ সাল নাগাদ সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের জন্য শিল্প, সেবা, কৃষিসহ সব খাতে উৎপাদনশীলতা বাড়াতে হবে। এই লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট অংশীজনকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।

মোহাম্মদ আবদুল্লাহ্ বলেন, সেবাদানের ক্ষেত্রে শিল্প মন্ত্রণালয় বর্তমানে আগের চেয়ে অনেক গতিশীল। দ্রুত সেবাদানের লক্ষ্যে এরই মধ্যে মন্ত্রণালয়ে ই-নথি ব্যবস্থাপনা চালু করেছে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এ-টু-আই প্রকল্পের মূল্যায়ন প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত ডিসেম্বর মাসে ই-ফাইলিং কার্যক্রমে ৫৮টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে শিল্প মন্ত্রণালয় প্রথম স্থানে উঠে এসেছে। একই সঙ্গে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অর্গানাইজেশন (এনপিও) চলতি ১ থেকে ১৫ জুন মেয়াদে দেশের ২৩৮টি সরকারি প্রতিষ্ঠান ও দফতরের মধ্যে ই-নথি ব্যবস্থাপনায় শীর্ষস্থানে অবস্থান করেছে। ধারাবাহিক তদারকির মন্ত্রণালয়ের ই-নথি ব্যবস্থাপনায় এই সাফল্য এসেছে।

ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অর্গানাইজেশনের (এনপিও) পরিচালক এস এম আশরাফুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. দাবিরুল ইসলামসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিভিন্ন দফতর ও সংস্থার প্রধানরা।

"