মক্কা-মদিনা আক্রান্ত হলে বাংলাদেশ সেনা পাঠাবে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশ : ১৯ মে ২০১৭, ০০:০০

কূটনৈতিক প্রতিবেদক

পবিত্র মক্কা-মদিনার দুই মসজিদ আক্রান্ত হলে সৌদি আরবের সহযোগিতায় প্রয়োজনে সৈন্য পাঠাতে বাংলাদেশ প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। গতকাল বৃহস্পতিবার নিজ দফতরে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর সৌদি আরব সফর উপলক্ষে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। তবে কেন মক্কা ও মদিনার দুই মসজিদ হুমকি বা আক্রান্ত হওয়ার প্রশ্ন আসছে তার কোনো ব্যাখ্যা দেননি পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মক্কা ও মদিনা মুসলমানদের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও পবিত্রতম স্থান। মুসলিম দেশ হিসেবে দুই পবিত্র মসজিদের ব্যাপারে যে ভক্তি ও ভালোবাসা আছে, যদি মক্কা ও মদিনার মসজিদ হুমকিতে পড়ে এবং সৌদি আরব আমাদের সহযোগিতা চায়, তাহলে অবশ্যই সৈন্য পাঠাব। যদি এ রকম কিছু হয়, তবে সামরিক সাহায্য দিতে প্রস্তুত থাকব। সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের ব্যাপারে বাংলাদেশের আগের অবস্থানই অটুট আছে কি না জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা আগের অবস্থানেই আছি।

সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটে অংশ নিয়ে বাংলাদেশ সৌদি-ইরান সংঘাতে যুক্ত হয়ে পড়ছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ নিয়ে জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এই আশঙ্কা একেবারেই ভিত্তিহীন। সন্ত্রাসবাদের মতো বৈশ্বিক সমস্যা মোকাবিলা করাই সৌদি কেন্দ্রের প্রধান লক্ষ্য। মুসলিম দেশগুলোর মধ্যে এ বিষয়ে সহযোগিতার ক্ষেত্র তৈরি করাই এর উদ্দেশ্য। সৌদি কেন্দ্রের নামকরণ হয়েছে ‘গ্লোবাল সেন্টার ফর কমবেটিং এক্সট্রিমিস্ট থট’। বাংলাদেশ মনে করে, এই যে হানাহানি চলছে, এর অবসান হওয়া উচিত। প্রতিটি দেশ নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী তাদের জনগণের জীবনযাপন ও বিকাশে কাজ করবে। সৌদি নেতৃত্বাধীন উদ্যোগকে এখনই জোট বলা ঠিক হবে না। এটি ক্রমবিকাশমান। এ বিষয়ে এখনো লিখিত কিছু হয়নি। তবে প্রস্তাবিত সামরিক জোট মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি আনতে সহায়ক হবে। এমনকি ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের বিরোধ নিরসনেও সেটি সহায়ক হবে। বাংলাদেশও সেটাই চায়।

"