দেলোয়ার হত্যা

কালোব্যাজ পরে বিচার চাইলেন প্রকৌশলীরা

প্রকাশ : ০৩ জুন ২০২০, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

গাজীপুর সিটি কপোরেশনের (অঞ্চল-৭) নির্বাহী প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেনকে (৫০) হত্যার প্রতিবাদ ও দ্রুত বিচারের দাবিতে বুকে কালোব্যাজ ধারণ করে কর্মসূচি পালন করেছেন দেশের প্রকৌশলীরা। এছাড়া আইইবির সব কেন্দ্র, উপকেন্দ্রসহ দেশের সব প্রকৌশলী সংস্থা, প্রতিষ্ঠান ও বিশ্ববিদ্যালয়ে হত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে ব্যানার টানানো হয়।

গত শনিবার দেশের প্রকৌশলীদের প্রতিনিধিত্বকারী একমাত্র জাতীয় প্রতিষ্ঠান ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশের (আইইবি) ৬৯৬তম নির্বাহী কমিটির সভায় নেতারা এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন। একই সঙ্গে নিহত প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেনের দুই সন্তানের লেখাপড়া নির্বিঘেœ চালিয়ে নিতে প্রতি মাসে প্রতি সন্তানকে ৫ হাজার টাকা করে মোট ১০ হাজার টাকা আইইবি থেকে বৃত্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত দেশের সব প্রকৌশলীরা বুকে কালোব্যাজ ধারণ করে এই নির্মম হত্যাকান্ডের প্রতিবাদ ও দ্রুত বিচার দাবি জানান।

এ বিষয়ে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশের (আইইবি) প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর এবং সম্মানী সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী খন্দকার মনজুর মোর্শেদ বলেন, সরকারের জাতীয় পরিকল্পনা বাস্তবায়ন ও মাঠ পর্যায়ের যাবতীয় কার্যক্রমে অংশগ্রহণের মাধ্যমে দেশের জাতীয় অর্থনীতিতে প্রকৌশলীরা উল্লেখযোগ্য অবদান রেখে আসছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রকৌশলীদের যেকোনো সমস্যা সমাধানে এগিয়ে এসেছেন। তাই প্রকৌশলীরাও তাদের সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দেশের উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। কিন্তু দেশের এসব উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতেই প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেনকে হত্যা করা হয়েছে বলে মনে হচ্ছে।

তারা আরো বলেন, আমরা সরকারকে ধন্যবাদ জানাই হত্যাকান্ডের পর দ্রুততম সময়ের মধ্যে তিনজনকে গ্রেফতার করার জন্য। এখন আমরা চাই, এই হত্যাকান্ডের অধিকতর তদন্ত করে প্রকৃত রহস্য উন্মোচন করা হোক এবং আমরা প্রকৃত দোষীদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে প্রকৌশলীদের কর্মক্ষেত্র নিরাপদ রাখার দাবি জানাচ্ছি।

এর আগে আইইবির ৬৯৪তম নির্বাহী কমিটির সভায় প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন হত্যাকান্ডের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেফতার করে সঠিক তদন্তের মাধ্যমে দ্রুত বিচার দাবি জানিয়েছিল আইইবির নির্বাহী কমিটির সদস্যরা। পরে আইইবির ৬৯৫তম নির্বাহী কমিটির সভায় প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেনকে হত্যার অধিকতর তদন্তের দাবি জানানো হয়। একই সঙ্গে ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তির দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দফতরসহ সংশ্লিষ্ট দফতরগুলোতে চিঠি দেয় আইইবি।

 

"