উন্নয়ন অংশীদারদের ব্যয় করা অর্থের স্বচ্ছতা জরুরি

প্রকাশ : ২২ মে ২০২০, ০০:০০

কূটনৈতিক প্রতিবেদক

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে পরিবর্তিত পরিস্থিতি নিয়ে ইউরোপের ১০ জন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন। এ সময় মন্ত্রী ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সহায়তা হিসেবে ব্যয় করা অর্থের স্বচ্ছতা থাকা জরুরি বলে অভিমত প্রকাশ করেন। গতকাল বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।গত বুধবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ডেলিগেশন রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে এ বৈঠক করেন।

বৈঠকে ইউরোপের দেশগুলো থেকে ৩ হাজার ১০০ কোটি টাকা সহায়তার বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রী বলেন, ‘উন্নয়ন অংশীদাররা সহায়তার জন্য যা ব্যয় করে তার স্বচ্ছতা ও দায়বদ্ধতা নিশ্চিত করা প্রয়োজন। এজন্য এ বিষয়ে সব তথ্য তাদের প্রকাশ করা উচিত। যাতে করে করদাতারা জানতে পারেন তাদের অর্থ কোথায় ব্যয় করা হচ্ছে।’রাষ্ট্রদূতরা বাক স্বাধীনতার বিষয়টি উত্থাপন করলে মন্ত্রী তাদের জানান, বাংলাদেশে স্বাধীনতার সঙ্গে দায়িত্ববোধ না থাকলে সমাজে অরাজকতা তৈরি হবে।

উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘মুক্ত ইচ্ছার নামে কাউকে রাইফেল নিয়ে শপিং মলে ঢুকে মানুষ হত্যা করতে দেওয়া হয় না। একইভাবে মিথ্যা বানোয়াট খবর পরিবেশন করে মানুষকে উত্তেজিত করতে দেওয়া হবে না।’ কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শিবিরের জন্য ফোর-জি নেটওয়ার্ক চালুর বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এটি নিরাপত্তার জন্য করা হয়েছে। যাতে করে মাদক চোরাচালান, নারী ও শিশু পাচারসহ অন্যান্য অপকর্ম রোধ করা যায়। ওই ক্যাম্পে টু-জি নেটওয়ার্ক আছে যার মাধ্যমে তারা কথা বলতে পারে।’ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে তিনি ইউরোপের সহায়তা চান।

 

"