সপ্তাহের ব্যবধানে বেনাপোল হয়ে ২৯৬ যাত্রী প্রবেশ

প্রকাশ : ১৩ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস আতঙ্কে বিদেশ থেকে বাংলাদেশি পাসপোর্টযাত্রীদের দেশে আসার পর প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখার ঘোষণার পর বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে ভারত থেকে আসে ২৯৬ জন নারী-পুরুষ ও শিশু। সপ্তাহের ব্যবধানে দেশে প্রকেশ করা এসব যাত্রীর প্রত্যেককে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। করোনাভাইরাসে ভারতে লকডাউন ঘোষণার পর কলকাতাসহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন স্থানে আটকে পড়া এসব যাত্রী। পরে বিশেষ ব্যবস্থায় ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে তারা দেশে ফিরে আসে।

গত এক সপ্তাহে আটকে পড়া বাংলাদেশি পাসপোর্টযাত্রীরা চিকিৎসা, ভ্রমণ শেষে দেশে ফেরত এলে তাদের জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে বেনাপোল পৌর বিয়েবাড়ি কমিউনিটি সেন্টার ও ঝিকরগাছা উপজেলার গাজির দরগাহ নামক একটি মাদ্রাসায় রাখা হয়। ফেরত আসা ২৯৬ জন পাসপোর্ট যাত্রীর মধ্যে ১৯৬ জন পুরুষ, ৮৫ জন নারী ও ১৫ জন শিশু। এদের মধ্যে একজন মৃত ব্যক্তির লাশ এসেছে। তিনি ক্যানসারের রোগী ছিলেন। ফেরত আসাদের বাড়ি দেশের বিভিন্ন জেলায়। এরই মধ্যে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইন শেষ হওয়ার আগে তাদের গায়ে তাপমাত্রা বেশি না থাকায় ১৬ জন নিজ বাড়িতে চলে গেছে। গতকাল রোববার বিকেলে ভারত থেকে এ পথে ৫০ জন নারী, পুরুষ ও শিশু বাংলাদেশে ফিরে আসে।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ডা. জাহিদুল ইসলাম জানান, দেশে ফেরা ৫০ বাংলাদেশি যাত্রীকে সতর্কতার সঙ্গে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে বেনাপোলে পৌর বিয়েবাড়ি কমিউনিটি সেন্টারে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। ফেরত আসাদের শরীরে বেশি তাপমাত্রা পাওয়া যায়নি। বেনাপোল ইমিগ্রেশন ওসি (তদন্ত) মহসিন কবির বলেন, ভারত থেকে আসা বাংলাদেশি পাসপোর্টযাত্রীদের জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধি হিসেবে ইউএনও গ্রহণ করছেন এবং এসব যাত্রীকে প্রাথমিক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

 

"