৩ স্থানে শ্বাসকষ্টে ২ নারীসহ ৩ জনের মৃত্যু

প্রকাশ : ১২ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

ফেনীর পরশুরামে শ্বাসকষ্টে মাদ্রাসা ছাত্র, নওগাঁর পতœীতলায় এক নারী এবং মাদারীপুরের কালকিনিতে প্রবাসীর স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরÑ

ফেনী : ফেনীর পরশুরামে শ্বাসকষ্টজনিত রোগে গতকাল শনিবার সকালে এক মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। সে পরশুরাম পৌর এলাকার ৫নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সদস্য ও গত কয়েকদিন ধরে ত্রাণ বিতরণ কাজে নিয়োজিত ছিলেন। সে পরশুরাম ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার আলিম প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

জানা গেছে, পরশুরাম বাজারে দক্ষিণ কোলাপাড়া গ্রামের প্রবাসীর ছেলে দীর্ঘদিন থেকেই শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যায় ভুগছে। গত শুক্রবার রাতে তার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায় গতকাল সকাল সাড়ে ১০টায় তার শ্বাসকষ্ট আরো বেড়ে গেলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথেই সে মারা যায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আবদুল খালেক জানান, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। মৃত ব্যক্তির শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আছে কি-না, তা জানতে নমুনা সংগ্রহ করে চট্টগ্রাম পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

নওগাঁ : নওগাঁর পতœীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শ্বাসকষ্ট নিয়ে শাহীন আক্তার (২৬) নামে নারীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ৮টায় তিনি মারা যান। করোনা উপসর্গ নিয়ে ওই নারীর মৃত্যু হয়েছে, এমন পরিস্থিতিতে এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। মৃত শাহীন আক্তার উপজেলার মাটিন্দর ইউপির বাজকোলা গ্রামের মোক্তাদিরের স্ত্রী। তিনি দুই দিন আগে ঢাকার আশুলিয়া থেকে স্বামীর বাড়ি আসেন। লাশের নমুনা সংগ্রহ করছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

এলাকাবাসী ও নওগাঁর ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মনজুর এ মোর্শেদ জানান, শাহীন আক্তার গত শুক্রবার ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ি আসেন। গতকাল শনিবার ভোররাতে তাকে শ্বাসকষ্ট নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায় তার পরিবারের লোকজন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ৮টায় শাহীন আক্তার মারা যায়।

শাহীনের পরিবারের লোকজন গোপনে লাশ নিয়ে গ্রামের বাড়িতে দাফনের জন্য গেলে সেখানে গ্রামের লোকজন করোনায় আক্রান্ত হয়ে শাহীনের মৃত্যু হয়েছে সন্দেহে গ্রামে ঢুকতে বাধা দেয়। এ সময় গ্রামের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে তার পরিবারের লোকজন শাহীনের লাশ নিয়ে দ্রুত তার বাবার বাড়ি একই উপজেলার আকবরপুর ইউপির ব্যাদাপুর গ্রামে নিয়ে যায়। নওগাঁর ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মনজুর এ মোর্শেদ জানান, লাশের নমুনা সংগ্রহের জন্য চিকিৎসক পাঠানো হয়েছে।

কালকিনি (মাদারীপুর) : মাদারীপুরের কালকিনিতে শ্বাসকষ্টে রেবা আক্তার নামে এক দুবাই প্রবাসীর স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শনিবার ভোরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে কি-না তা জানা যায়নি। স্বাস্থ্য বিভাগ তার ওই নারীর নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠাচ্ছে। এ ঘটনায় একটি বাড়ি লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে। ইসলামী ফাউন্ডেশনের তত্ত্বাবধানের তার দাফনও শেষ হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কালকিনি ইউএনও মো. আমিনুল ইসলাজ জানান, উপজেলার রমজানপুর ইউনিয়নের চড়াইলকান্দি গ্রামের দুবাই প্রবাসী জাফর হাওলাদারের স্ত্রী রেবা আক্তার তিন-চার দিন ধরে শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। অবস্থার অবনতি হলে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে তার মৃত্যু হয়। পরে মৃত ব্যক্তির বাড়ির চারটি পরিবারকে লকডাউন করা হয়েছে। সির্ভিল সার্জন শফিকুল ইসলাম জানান, মৃত ব্যক্তির করোনাভাইরাসের উপসর্গ থাকায় উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ পরীক্ষার জন্য তার নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠিয়েছে।

 

"