আসামে ইনার লাইন পারমিট চালুর প্রস্তাব

প্রকাশ : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০

কলকাতা প্রতিনিধি

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন আসাম চুক্তি বিরোধী প্রতিবাদকারীদের শান্ত করতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পরিচালিত একটি কমিটি ১৯৫১-কে কাট অব বছর হিসেবে নির্ধারণ করার পরামর্শ দিয়েছে। আসামের আদিবাসীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার জন্য এবং বহিরাগতদের রুখতে অভ্যন্তরীণ লাইন পারমিট বা আইএলপি চালু করে ওই কাট অব বছরের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

হাইপ্রোফাইল ওই কমিটির রিপোর্টে আসাম চুক্তির ৬নং ধারা বাস্তবায়নের জন্য একটি রোডম্যাপ দেওয়া হয়েছে, যাতে আসাম রাজ্যের জনগণের সাংস্কৃতিক, সামাজিক, ভাষাগত পরিচয় এবং ঐতিহ্য রক্ষা, সংরক্ষণ এবং প্রচার সংক্রান্ত একটি বিধান রয়েছে। আসাম চুক্তির ৬নং ধারা অনুযায়ী আসামের মানুষের সাংস্কৃতিক, সামাজিক, ভাষাগত পরিচয় এবং ঐতিহ্য সুনিশ্চিত করার জন্য সাংবিধানিক, আইনগত এবং প্রশাসনিক নিরাপত্তা দিতে হবে। সেই ভিত্তিতেই সিএএ-র বিরুদ্ধে জনরোষ আসামে। সে রাজ্যের মানুষের অভিযোগ সিএএ কার্যকর হলে বাংলাদেশি হিন্দুতে ভরে যাবে আসাম। আর সেই কারণেই তারা এই আইনের বিরোধিতা করছেন। কেননা আসাম চুক্তির ৬নং ধারা অনুযায়ী আসামে নাগরিকত্ব পাওয়ার কাট অব তারিখ হচ্ছে ২১ মার্চ ১৯৭১, আর নাগরিকত্ব আইন অনুযায়ী কাট অব তারিখ হলো ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪। অর্থাৎ এই সময়ের আগে বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং আফগানিস্তান থেকে ধর্মীয় কারণে অত্যাচারিত হয়ে যেসব অমুসলিম শরণার্থীরা ভারতে এসেছেন, তাদের প্রত্যেককেই নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। আর এখানেই আপত্তি জানায় আসামবাসী। তাদের যুক্তি, সিএএ কার্যকর হলে বাংলাদেশি হিন্দুতে ভরে যাবে তাদের রাজ্য। আসামের এই জনরোষ রুখতেই এবার কাট অব বছর পরিবর্তন করে ১৯৭১ সালের বদলে ১৯৫১ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

 

"