কুমিল্লার শাহসুজা মসজিদ ঝুঁকিতে

প্রকাশ : ১২ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০

কুমিল্লা প্রতিনিধি

অযত্ন অবহেলা ও সংরক্ষণের অভাবে ধ্বংসের ঝুঁকিতে রয়েছে কুমিল্লার অন্যতম প্রাচীন মুসলিম নিদর্শন ঐতিহাসিক মোগল স্থাপনা শাহসুজা মসজিদ। মসজিদের মিম্বরের কোল ঘেঁষে মনিরুল ইসলাম সরকার নামের এক ব্যক্তি বহুতল ভবন নির্মাণে পাইলিংয়ের কারণে পশ্চিম-উত্তর অংশের দেয়ালে এরই মাঝে ফাঁটলের সৃষ্টি হয়েছে।

মোগল বাদশা শাহসুজা ইসলামের প্রচারের উদ্দেশে ১৬৫৮ সালে কুমিল্লার মোগলটুলী এলাকায় নির্মাণ করেন ওই মসজিদ, যা পরবর্তী সময়ে ঐতিহাসিক শাহসুজা মসজিদ নামে পরিচিতি লাভ করে। মূল মসজিদে পাশাপাশি দুটি ছোট গম্বুজের মাঝে রয়েছে একটি বড় আকারের গম্বুজ। তবে দ্বিতীয় দফা সংস্কারে মসজিদের দুই প্রান্তে ২২ ফুট করে দুটি কক্ষ ও সম্মুখভাবে ২৪ ফুট প্রশস্থ একটা বারান্দা নির্মাণ করা হয়। এতে আগের সৌন্দর্য অনেকটাই নষ্ট হয়ে গেছে। মসজিদটিতে ভেতরে একসঙ্গে ৯৮০ জন এবং বারান্দায় প্রায় আড়াইশ’সহ একত্রে ১ হাজার ২০০-এর বেশি মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারেন। সম্প্রতি মসজিদের পশ্চিম দিকে মিম্বরের সামনে থাকা খালি জায়গাটির অংশ বিশেষ দখল করে মনিরুল ইসলাম সরকার নামের এক ব্যক্তি বহুতল ভবন নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু করে। সেখানে পাইলিংয়ের কাজ চলছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, পাইলিং শুরুর পর মসজিদের মিম্বরের পশ্চিম-উত্তর অংশে বড় আকারের ফাটল দেখা দিয়েছে।

এ ব্যাপারে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের সহকারী ইঞ্জিনিয়ার আবদুর রব বলেন, সিটি করপোরেশনের অনুমতি নিয়েই ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। তবে মসজিদের মিম্বর ফাটলের ব্যাপারে মসজিদ কমিটি বা স্থানীয় কেউ অভিযোগ করেনি, যদি করে তবে ব্যবস্থা নেব। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মনিরুল ইসলাম সরকারের সঙ্গে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। প্রতœতত্ত্ব অধিদফতরের কুমিল্লা অঞ্চলের পরিচালক ড. আতাউর রহমান জানান, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এটা রক্ষার জন্য আমাদের পক্ষ থেকে যা যা করার দরকার সেটা করব।

"