নিজ দায়িত্ব কেউই পালন করছি না

অভিযোগ সুলতানা কামালের

প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল বলেছেন, আমরা কেউ-ই যার যার অবস্থান থেকে নিজের দায়িত্বটা পালন করছি না। দায়িত্ব ও দোষ সব সময় অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে দেই। দুর্ঘটনার কারণ কী তা বের করার চেষ্টা করি না। গতকাল শুক্রবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে যাত্রীকল্যাণ সমিতির সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সুলতানা কামাল বলেন, সড়কের সঙ্গে জড়িত সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করে যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। কারণ এটা মানুষের জীবনের নিরাপত্তার প্রশ্ন। এটা মানবিক মর্যাদার প্রশ্ন।

পরিবহন ব্যবস্থার কথা উল্লেখ করে এই মানবাধিকারকর্মী বলেন, আমাদের দেশের চালকরা এখনো ট্রিপে গাড়ি চালান। এটা কোন ধরনের মানবিকতা? তারা আট ঘণ্টার চেয়ে অনেক বেশি পরিশ্রম করেন। আমরা বারবার বলেছি, তাদের একটা নির্দিষ্ট বেতনের আওতায় নিয়োগ দেওয়া হোক। কিন্তু তা এখনো কার্যকর করা হচ্ছে না। বাসচালকদের ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন লঙ্ঘিত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, অবশ্যই যাত্রীদেরও দোষ আছে। পুলিশ ধরবে সেই ভয়ে তারা মাথায় হেলমেট পরেন। কিন্তু পরিবার ও ছোট্ট শিশুর মাথায় হেলমেট থাকে না। কেন আমরা ফুটওভার ব্রিজে উঠি না? কেন কাঁটাতারের মাঝ দিয়ে এবং কংক্রিট পেড়িয়ে রাস্তা পার হই? দেশের জনগণের চেতনাবোধ জাগ্রত করতে না পারার জন্য রাজনীতিবিদদের দোষারোপ করেন তিনি।

বাংলাদেশ যাত্রীকল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আরো অংশ নেন- সাংবাদিক আবু সাঈদ খান, সংসদ সদস্য মাঈনুদ্দিন খান বাদল, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণাপত্র পাঠ করেন যাত্রীকল্যাণ সমিতির উপদেষ্টা ও নাগরিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শরীফুজ্জামান শরীফ। সংবাদ সম্মেলন থেকে যাত্রী সাধারণের হয়রানি বন্ধে প্রতি বছরের ১৩ সেপ্টেম্বরকে ‘যাত্রী অধিকার দিবস’ হিসেবে পালন করার ঘোষণা দেওয়া হয়।

"