বাউফলে মামলার বাদীকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশ : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

পটুয়াখালীর বাউফলে এক হত্যা মামলার বাদীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে আসামিপক্ষের লোকজন। নিজ সন্তানকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে মামলা করেন মো. কবির হোসেন বয়াতি (৩৮)। গত শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার কনকদিয়া ইউনিয়নের কুম্ভখালি গ্রামে তাকে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে আসামিরা।

নিহতের স্ত্রী আকলিমা বেগম জানান, একই এলাকার কুদ্দুস হাওলাদার ও খালেক মোল্লাগংদের সঙ্গে তাদের বিরোধ হয়। এর জেরে গত ২০ জুলাই রাতে তার স্কুলপড়–য়া ছেলে সজিব হাওলাদারকে কুপিয়ে জখম করে প্রতিপক্ষরা। এ ঘটনায় ২৬ জুলাই তার স্বামী কবির বয়াতি বাদী হয়ে কুদ্দুস হাওলাদারসহ কয়েকজনকে আসামি করে বাউফল থানায় একটি মামলা করেন। এরপর থেকে মামলা প্রত্যাহারে জন্য আসামিরা তার স্বামীকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিল।

ঘটনার দিন রাত ৮টার দিকে কবির বয়াতি জমিজমার কাগজপত্র নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব হাওলাদারের বাড়িতে যাওয়ার পথে প্রতিপক্ষ কুদ্দুস বয়াতির সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সরোয়ার, খালেক মোল্লা, মজিবুর মোল্লা, কামাল মোল্লা, রানা হাওলাদার, সজল হাওলাদার, আবু হাওলাদার ও নুরুল চৌকিদার তার স্বামীকে ধরে আসামিদের বাড়িতে নিয়ে যায় এবং শরীরের বিভিন্ন জায়গা কুপিয়ে জখম করে বাড়ির উঠানে বেঁধে রাখে। খবর পেয়ে পুলিশ কবিরকে উদ্ধার করে বাউফল হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. ফয়সাল আহম্মেদ জানান, তার হাতে-পায়ে ও মাথায় গুরুতর জখম ছিল। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হওয়ায় হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই তার মৃত হয়।

বাউফল থানার ওসি খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে কুদ্দুস হাওলাদার নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

 

"