খুলনায় এবার স্বামীকে জেল থেকে ছাড়ানোর কথা বলে স্ত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ

প্রকাশ : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

খুলনা ব্যুরো

খুলনায় এবার কারাবন্দি স্বামীকে ছাড়ানোর কথা বলে ১৯ বছর বয়সি স্ত্রীকে গণধর্ষণ করেছে তিন দুর্বৃত্ত। ওই গৃহবধূকে গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওসিসিতে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে গত শুক্রবার সকালে দাকোপ উপজেলার নলিয়ান গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম জানান, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ সেন্টার (ওসিসি) থেকে তাকে জানানো হয়েছে গৃহবধূর চাচা শ্বশুর এই ঘটনার নায়ক।

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি কো-অডিনেটর ডা. অঞ্জন কুমার চক্রবর্তী জানান, শুক্রবার তিন মাসের অন্তঃসত্তা গৃহবধূ গাইনি বিভাগে ভর্তি হয়েছিল। পরে তার কেস স্টোরি শুনে তাকে ওসিসিতে নেয়া হয়েছে । আজ তাকে পরীক্ষা করা হবে। খুমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই গৃহবধূর শাশুড়ি অভিযোগ করেন তার ছেলে একটি মামলায় বর্তমানে জেলে আছে। ছেলের জামিনের কথা বলতে তিনি ও তার স্বামী বাইরে গিয়েছিলেন। তার পুত্রবধূ একাই বাড়িতে ছিল। এ সময় প্রতিবেশী ইবাদুল গাজীর দুই ছেলে শরীফুল গাজী ও সাইফুল গাজী এবং তাদের এক বন্ধু আবির শিকদার তার পুত্রবধূর ঘরে প্রবেশ করে। তারাও ছেলের জামিনের বিষয়ে কথা-বার্তা বলতে থাকে। কিন্তু বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে এক পর্যায়ে মুখ চেপে ধরে তাকে গণধর্ষণ করে। পরে গৃহবধূর চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে দাকোপ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম চৌধুরী শনিবার সকালে বলেন, তিনি ঘটনাটি শুনেছেন। তবে এ ধরনের অভিযোগ নিয়ে কেউ থানায় যায়নি। এমন ঘটনা ঘটে থাকলে অবশ্যই দায়ীদের খুঁজে বের করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। প্রসঙ্গত, এর আগে ২ আগস্ট খুলনার রেলওয়ে থানা অভ্যন্তরে ওসিসহ ৫ পুলিশ কর্তৃক গৃহবধূ দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

 

"