জীবন চলে হাতুড়ি ছেনির ছন্দে...

প্রকাশ : ২০ জুন ২০১৯, ০০:০০

রাকিবুল ইসলাম রাকিব, গৌরীপুর (ময়মনসিংহ)

গ্রামের মেঠোপথ ধরে ধীরগতিতে হাঁটছেন তিনি। তার এক হাতে হাতুড়ি আরেক হাতে ছোট ছেনি। মুখে ছন্দ তুলে ডাকছেনÑ ‘এই লাগবে শিল-পাটা, ধার কাটা’। ডাক শুনে শিল-পাটা নিয়ে ছুটে এলেন এক নারী। দর-কষাকষির মাধ্যমে পারিশ্রমিক ঠিক করে রাস্তার ওপরই বসে কাজ শুরু করে দিলেন। অল্প সময়ে হাতুড়ি আর ছেনি দিয়ে পাটার বুক খোদাই করে ফুটিয়ে তুললেন মাছের আকৃতি।

গত মঙ্গলবার দুপুরে ময়মনসিংহের গৌরীপুর পৌর শহরের মাছুয়াকান্দা গ্রামের দৃশ্য এটি। কথা বলে জানা যায়, নাম তার নজরুল ইসলাম (৫০)। পেশায় শিল-পাটা কাটার কারিগর। তিনি ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার সৈয়দ বাকুড়ি গ্রামের মৃত নূর ইসলামের সন্তান।কথা বলার সঙ্গেই ছন্দে ছন্দে শিল-পাটা কাটার কাজও করছিলেন নজরুল। হাতুড়ি আর ছেনিতে অদ্ভুত ছন্দ তুলে হাতের নিপুণ কৌশলে কাজটি তিনি করে চলেছেন স্বভাবসুলভভাবে।

তিনি বলেন, অভাবের তাড়নায় লেখাপড়া করা হয়নি। জীবিকার তাগিদে ১০ বছর বয়সেই গাজীপুর জেলার টঙ্গীতে শিল-পাটা তৈরির কারখানায় কাজ নেন। সেখানে জালাল উদ্দিন নামে এক লোক তাকে এই শিল-পাটা তৈরির কাজ শেখান। এরপর এই পেশাতেই তার কেটে গেছে চল্লিশ বছর।

দীর্ঘদিন টঙ্গীতে কাজ করলেও এখন ঈশ্বরগঞ্জে নিজ বাড়িতে থেকেই গ্রামে গ্রামে গিয়ে কাজ করেন নজরুল। দাম্পত্য জীবনে তার স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। বড় ছেলে উচ্চমাধ্যমিক ও ছোট ছেলে মাধ্যমিকে পড়াশোনা করে। ছোট মেয়ের বয়স পাঁচ বছর। প্রতিদিন ঈশ্বরগঞ্জসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় কাজ করতে বের হন নজরুল। ছোট শিল-পাটা কাটতে ৩০ টাকা, বড় শিল-পাটা কাটতে ৫০ টাকা নেন তিনি। দিন শেষে তার আয় ৫০০ থেকে ৬০০ টাকার মতো। এই টাকা দিয়েই চলে সংসার ও সন্তানদের পড়াশোনার খরচ।

কথা বলার ফাঁকে শিল-পাটা কাটাতে চলে এলেন আরো কয়েক নারী। তাদেরই একজন নাজহান সুলতানা। এ প্রতিনিধিকে তিনি বলেন, ‘একসময় মরিচ, হলুদ, পেঁয়াজ, রসুন, আদাসহ বিভিন্ন মসলা বাটার জন্য শিল-পাটাই ছিল একমাত্র ভরসা। কিন্তু এখন মসলা ভাঙানোর মেশিন ও প্যাকেটজাত মসলা বাজারে আসায় শিল-পাটার ব্যবহার কমেছে’।

কথার রেশ টেনে নজরুল বলেন, ‘আপা ঠিক কথাই বলছে। শিল-পাটার ব্যবহার কমে যাওয়ায় আমাদের আয়-রোজগারও কমে গেছে। তাই আয়ের বিকল্প পথ বের করার জন্য এই পেশার পাশাপাশি লোহার ড্রাম, ট্রাংক, সিন্দুকসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র সারানোর কাজও করি।’

"