২০ রোজার মধ্যে শ্রমিকদের বেতন-বোনাস দেওয়ার দাবি

প্রকাশ : ২৫ মে ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

২০ রমজানের মধ্যে মে মাসের বেতন, পূর্ণ উৎসব বোনাসসহ প্রাপ্য সব পাওনা পরিশোধ এবং পোশাক শ্রমিকদের আবাসন, চিকিৎসা, রেশনিংয়ের জন্য বাজেটে বিশেষ বরাদ্দের দাবি জানিয়েছেন গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র। এছাড়া অব্যাহতভাবে ছাঁটাই, নির্যাতন, হামলা বন্ধ ও শ্রমিকদের নামে করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। গতকাল শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে এসব দাবি জানান সংগঠনটির নেতারা।

সমাবেশে তারা বলেন, প্রতি বছর রোজার শুরুতে শ্রম মন্ত্রণালয় মালিকদের সঙ্গে বৈঠক করে সব পোশাক শিল্প শ্রমিকের বেতন-ভাতা নির্দিষ্ট সময়ে পরিশোধের কথা বলে। কিন্তু মালিকরা ঈদের ছুটির আগে বোনাস-বেতন পরিশোধ না করে শ্রমিকদের জিম্মি করে। ঈদের আগ মুহূর্তে শ্রমিকরা যখন স্বজনদের সঙ্গে মিলিত হওয়ার জন্য উদগ্রীব হন তখন মালিকরা শ্রমিকদের বোনাস না দিয়ে বকশিশ হিসেবে কিছু টাকা দেয় এবং আংশিক বেতন দিয়ে শ্রমিকদের সঙ্গে প্রতারণা করে। শ্রমিকদের তখন প্রতিবাদ করার কোনো সুযোগ থাকে না। প্রতিবাদ করলেও উৎসবের আগে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অজুহাতে সরকার মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় না।

বক্তারা ২০ রোজার মধ্যে শ্রমিকদের প্রাপ্য বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবি জানান। এ সময়ের মধ্যে পরিশোধ করা না হলে উদ্ভূত পরিস্থিতির দায় মালিকদের নিতে হবে বলে জানান।

সমাবেশে গার্মেন্ট শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব নঈমুল আহসান জুয়েল, ঐক্য পরিষদের নির্বাহী পরিষদের অন্যতম নেতা শাহ মো. আবু জাফর, আবদুল ওয়াহেদ, আহসান হাবিব বুলবুল, খালেকুজ্জামান লিপন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

"