স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশ : ২৬ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

পিরোজপুর প্রতিনিধি

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় জনি তালুকদার (২৫) নামে এক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে উপজেলার হলতা গুলিসাখালী ইউনিয়নের কবুতরখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ বলছে, উপজেলা নির্বাচন নিয়ে বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকা- ঘটেছে। নিহত জনি তালুকদার মঠবাড়িয়ার হলতা গুলিসাখালী ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ছিলেন। তিনি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী রিয়াজ উদ্দিন আহমেদের সমর্থক ছিলেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) মনিরুজ্জামান বলেন, জনি তালুকদারের হাত-পা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ১৪ থেকে ১৫টি ধারালো অস্ত্রের জখম ছিল। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে।

জনির চাচা হলতা গুলিসাখালী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি স্বপন তালুকদার অভিযোগ করেন একই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজুল আলমকে গত শনিবার রাতে কুপিয়ে জখম করা হয়। ওই মামলায় জনি এজাহারভুক্ত আসামি। রিয়াজুল আলমের ওপর হামলার জের ধরে ইউপি সদস্য জুনায়েদুর রহমানের নেতৃত্বে প্রায় অর্ধশত লোক জনির ওপর হামলা করে। এ সময় আলমগীর হোসেন ও নবী হোসেনসহ কয়েক জন ধারালো অস্ত্র দিয়ে জনিকে কুপিয়ে জখম করে।

তবে জুনায়েদুর রহমান এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি হাসপাতালে ভর্তি। এ ঘটনায় আমি জড়িত নই। রিয়াজুল আলমের ওপর হামলা ঘটনায় স্থানীয় থানায় করা মামলার বাদী আমি। এ কারণে আমাকে এ হত্যাকা-ে জড়ানোর চেষ্টা চলছে।’

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম আর শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, হত্যাকা-ের ঘটনায় জাহাঙ্গীর নামের এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। লাশের ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের সদস্যরা লিখিত অভিযোগ করবেন। অভিযোগ পাওয়ার পর মামলা নেওয়া হবে।

 

"