গ্যাটকো দুর্নীতি

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে চার্জ গঠন ২৭ ফেব্রুয়ারি

প্রকাশ : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

আদালত প্রতিবেদক
ama ami

গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি শেষ করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। গতকাল বৃহস্পতিবার পুরান ঢাকার আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার তিন নম্বর বিশেষ জজ সৈয়দ দিলজার হোসেনের আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি মোশারফ হোসেন কাজল অভিযোগ গঠন শুনানি করেন। রাষ্ট্রপক্ষের অভিযোগ গঠন শুনানি শেষে আসামিপক্ষের অভিযোগ গঠনের জন্য ২৭ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেন আদালত। এদিন দুপুর ১২টা ৩৫ মিনিটে কারাগার থেকে খালেদা জিয়াকে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠ আদালতে হাজির করা হয়েছে। শুনানি শেষে বেলা ২টার দিকে তাকে আবারও কারাগারে নেওয়া হয়।

শুনানিতে পিপি কাজল বলেন, খালেদা জিয়াসহ মামলার সব আসামি গ্যাটকোকে অবৈভাবে কাজ পাইয়ে দেওয়ার জন্য অর্থ আত্মসাৎ করেন। এতে রাষ্ট্রের এক হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। এটি প্রমাণ করার জন্য আমাদের কাছে যথেষ্ট আলামত ও সাক্ষ্য-প্রমাণ রয়েছে। এর ভিত্তিতে আমরা আশা করছি, আসামিদের শাস্তির আওতায় আনতে পারব। তাই খালেদাসহ সব আসামির বিরুদ্ধে ২৯৪৭ সালের দুদকের ৫ এর ২ ধারা ও দন্ডবিধি ৪০৯/১০৯ ধারায় তাদের অভিযোগ গঠনের আবেদন করছি। এর আগে গত ২৪ জানুয়ারি খালেদা জিয়াকে হাজিরা দেওয়ার জন্য কারাগার থেকে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠ আদালতে হাজির করা হয়। ওইদিন মামলার প্রয়োজনীয় নথিপত্র না পাওয়ায় আসামিপক্ষের আইনজীবীরা নথিপত্র চেয়ে সময়ের আবেদন করলে আদালত তা মঞ্জুর করেন। এরপর আদালত অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য গতকাল বৃহস্পতিবার ঠিক করেন।

২০০৭ সালের ২ সেপ্টেম্বর দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উপপরিচালক গোলাম শাহরিয়ার চৌধুরী সাবেক চারদলীয় জোট সরকারের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া, তার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় এ মামলা করেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া দুদকের করা দুই মামলায় ১০ ও ৭ বছরের কারাদন্ডে দন্ডিত হয়েছেন। আপিলে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের কারাদন্ড বেড়ে ১০ বছর এবং জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিশেষ আদালতে সাত বছরের কারাদন্ডে দন্ডিত হন তিনি। গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার পর থেকে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারে বন্দি আছেন খালেদা জিয়া।

 

"