মান বাড়িয়ে মানুষের কাছে নেওয়াই লক্ষ্য : রেলমন্ত্রী

প্রকাশ : ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক
ama ami

কালোবাজারি বন্ধে রেলের টিকিট কেনায় জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা জন্ম নিবন্ধন নম্বর বাধ্যতামূলক করার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন নতুন রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। গতকাল রোববার রেলভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ১০ বছরে রেলে মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস বাড়লেও টিকিট কালোবাজারি অর্জন নষ্ট করে দিচ্ছে। আমি চাই এটি বন্ধ হোক। এনআইডি ছাড়া যদি আমি টিকিট না করতে পারি তাহলে কমে যাবে। এ ডিভাইসের কাজ শুরু করা গেলে এটি ভালো উদ্যোগ হবে। এ বছরের শুরু থেকে এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের সোনার বাংলা এক্সপ্রেসের টিকিট কেনার পদ্ধতি পরীক্ষামূলকভাবে শুরু করেছে রেলওয়ে। একটি এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধন নম্বরের বিপরীতে চারটি টিকিট সংগ্রহ করা যাচ্ছে। একটি নম্বর দিয়ে প্রতিদিন একবারই টিকিট সংগ্রহ করা যাচ্ছে। ১ জানুয়ারি থেকে অনলাইনে শুরু হলেও ১৫ জানুয়ারি থেকে ঢাকা ও চট্টগ্রাম রেল স্টেশনের কাউন্টারেও সোনার বাংলার টিকিট কিনতে এনআইডি অথবা জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিতে হচ্ছে যাত্রীদের।রেল পরিবহনে অভিযোগবিহীনভাবে সেবা দেওয়াকেই মূল চ্যালেঞ্জ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, চাহিদার সঙ্গে যখন বাস্তবতার সামঞ্জস্য না থাকে তখন টিকিট কালোবাজারি হয়। স্টেশনমাস্টারের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে এনআইডি দিয়ে টিকিট কেনার পদ্ধতি শুরু করা প্রয়োজন বলে মনে করেন মন্ত্রী। ডিভাইসটা আমরা করতে চাচ্ছি, বাধ্যবাধকতা থাকলে স্টেশনমাস্টার টিকিট দিতে পারবে না, সিস্টেমটা তৈরি করতে হবে। আগামী সপ্তাহে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী রেলভবনে আসবেন জানিয়ে তিনি বলেন, রেলের সেবাটা আরো কীভাবে ডিজিটাল করা যায় সে বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়া হবে। আগামীতে রেলের মেগা প্রকল্পগুলোতে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে জানিয়ে নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, কথা কম, কাজ বেশিÑ এ নীতিতে থাকতে চাই।

রেল খাতে সেবার মান বাড়িয়ে যুগপোযোগী করে মানুষের চাহিদার কাছাকাছি নিয়ে যাওয়াই মূল লক্ষ্য। রেলের উন্নয়নের জন্য নিরাপদ, সাশ্রয়ী, আরামদায়ক ও সেবামূলক খাতে জোর দেওয়া হবে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়ন ও সে অনুযায়ী দেশের প্রতি জেলায় রেল স্থাপনের জন্য কাজ করে যাওয়ার আশা প্রকাশ করেন তিনি।

"