সংলাপে ঐকমত্য

এক সঙ্গে নির্বাচন করবে আওয়ামী লীগ-জাপা

প্রকাশ : ০৬ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সংলাপের ধারাবাহিকতায় গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় গণভবনে জাতীয় পার্টির নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় জোটের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে সরকার গঠন এবং একসঙ্গে নির্বাচন করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয় বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। আর জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেন, আওয়ামী লীগের সঙ্গে আমাদের যে সখ্য ছিল, ভবিষ্যতেও হয়তো সেভাবেও থাকবে।

শুরুতে অর্থবহ নির্বাচনের মাধ্যমে ভবিষ্যতেও বাংলাদেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, যেহেতু সামনে নির্বাচন, নির্বাচন সামনে রেখে সব দলের সঙ্গে মতবিনিময় করছি। আমরা চাই একটা অর্থবহ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে। সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় শুরু হওয়া দুই ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকটি শেষ হয় রাত ৯টার পর।

সংলাপ শেষে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, আসন চূড়ান্ত হয় নাই। কোনো সংলাপ হয় নাই। আসন বিষয়ে কোনো চূড়ান্ত হয়নি। ৩০ জন মানুষ নিয়ে আসনের কথা বলা যায় নাকি? রাতে গণভবন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, সংলাপে জাতীয় পার্টির সঙ্গে আমরা একমত হয়েছিÑএকসঙ্গে সরকার গঠন করব এবং একসঙ্গে নির্বাচন করব।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের এই যাত্রায় আপনারা জাতীয় পার্টি পাশে ছিলেন, আমাদের সঙ্গে ছিলেন, আমরা একসঙ্গে এ দেশকে এগিয়ে নিয়ে গেছি। আজকে যে সহযোগিতা পেয়েছি, সে জন্য আপনাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

পরে জি এম কাদের বলেন, সব দল যদি নির্বাচনে আসে, তাহলে আমরা অতীতের মতো মহাজোটে নির্বাচন করব। আর সব দল নির্বাচনে না এলে আমরা ৩০০ আসনে নির্বাচন করব।

এরশাদের নেতৃত্বে ৩৩ সদস্যের প্রতিনিধিদল সংলাপে অংশ নেয়। প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যরা হলেন জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি প্রমুখ।

এ ছাড়া ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের চেয়ারম্যান মাওলানা এম এ মান্নান, মহাসচিব এম এ মতিন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাহফুজুল হক, জাতীয় ইসলামী মহাজোটের চেয়ারম্যান আবু নাসের ওয়াহেদ ফারুক ও বিএনএর চেয়ারম্যান সেকেন্দার আলী মনি।

আর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এদিন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক ওরায়দুল কাদের, সভাপতিম-লীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, কর্নেল (অব.) ফারুক খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

"