খাগড়াছড়িতে জেএসএস নেতা হত্যায় অস্ত্রসহ আটক দুই

প্রকাশ : ১২ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) নেতা মঞ্জু চাকমা হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পূর্ণ কান্তি চাকমা ও মহারত চাকমা নামের দুইজনকে গ্রেফতার করেছে যৌথ বাহিনী। পুলিশ জানিয়েছে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে দীঘিনালার শিমুলতলী এলাকার লক্ষ্মীচরণ চাকমার ছেলে পূর্ণ কান্তি চাকমা এবং একই এলাকার চাউ বিকাশ চাকমার ছেলে মহারত চাকমাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতাররা পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) সক্রিয় সদস্য বলে জানিয়েছে যৌথ বাহিনী।

গ্রেফতার ব্যক্তিদের তথ্যের ভিত্তিতে গত বুধবার রাতে শিমুলতলী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে হত্যাকা-ে ব্যবহৃত একটি ৯ মিমি বিদেশি পিস্তল, দুটি ম্যাগাজিন, ১১ রাউন্ড অ্যামোনিশন, চারটি মোবাইল সেট ও ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে বলেও জানায় যৌথ বাহিনী।

যৌথ বাহিনী সূত্র জানায়, ‘এক মাস আগে ইউপিডিএফের সক্রিয় কর্মী রোহেল চাকমা (বর্তমানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পালি অনুষদের ৩য়বর্ষে অধ্যয়নরত) প্রতিপক্ষ মঞ্জু চাকমাকে হত্যা করার জন্য পূর্ণ কান্তি চাকমা ও মহারত চাকমুেক ৫০ হাজার টাকা এবং পিস্তল সরবরাহ করে। এর পর পরিকল্পনা অনুযায়ী, ‘ জেএসএস’ নেতা মঞ্জু চাকমাকে গুলি করে মহারত চাকমা এবং তাকে এ কাজে সহযোগিতা করে পূর্ণ কান্তি চাকমা ও রূপান্তর চাকমা। গ্রেফতাররা তাদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এসব বলেন বলে জানিয়েছে যৌথ বাহিনী। খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম এম সালাউদ্দিন জানান, ‘জেএসএস’ নেতা মঞ্জু চাকমা হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুজনকে আটক করেছে যৌথবাহিনী। গ্রেফতার দুইজনকে দীঘিনালা থানায় সোপর্দ করা হয়েছে, পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের পর তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর দীঘিনালা থানার শিমুলতলা বাজার এলাকায় মহেন্দ্রসিং চাকমার ছেলে, ‘ জেএসএস’ নেতা মঞ্জু চাকমাকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ হত্যার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই জড়িতদের গ্রেফতারে সাঁড়াশি অভিযান শুরু করে যৌথাবহিনী। বহুল আলোচিত এ হত্যাকা-ের তিন দিনের মাথায় প্রকৃত আসামিদের গ্রেফতার করতে পারায় যৌথবাহিনীকে সাধুবাদ জানিয়েছে নিহতের পরিবার এবং স্থানীয় লোকজন। একই সঙ্গে তারা হত্যাকা-ের অপর আসামি রূপান্তর চাকমাকে অতি দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর আহ্বান জানিয়েছে এলাকাবাসী।

 

 

"