রায় বিপক্ষে গেলেও শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতেই থাকবে বিএনপি

প্রকাশ : ১০ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ দলের নেতাদের সর্বোচ্চ সাজা হলেও আপাতত কঠোর কর্মসূচিতে যাবে না দলটি। তবে রায়ের দিন অথবা পরের দিনই দলের আইনজীবীরা সংবাদ সম্মেলন করতে পারেন বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

এ নিয়ে লন্ডনে অবস্থানরত দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানও নেতাকর্মীদের ধৈর্য ধরে পরিস্থিতি মোকাবিলার নির্দেশ দিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছে সূত্রটি। মামলার রায়ের পর বিএনপির করণীয় নিয়ে দলটি নেতারা কয়েক দফা বৈঠক করেছেন, সেখানে বড় কোনো কঠোর কর্মসূচিতে না যাওয়ার বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেছেন। তারা বলছেন, খালেদার মুক্ত না হওয়া ও তারেকের মামলার রায়ের ঘটনার সমুচিত জবাব দেবে তফসিল ঘোষণার পর। দলের বেশ কয়েকজন নেতা এমনই মত ব্যক্ত করেছেন।

নেতারা জানিয়েছেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং নির্দলীয় সরকারের দাবি নিয়ে মাঠে সোচ্চার রয়েছে বিএনপি। এ নিয়ে দলটি কঠোর আন্দোলনে যেতে চায়। তাই গ্রেনেড হামলা মামলায় তারেক রহমানের সাজা হলেও ইস্যুটিকে সামনে আনতে চাচ্ছে না দলটি। কারণ এটিকে সামনে আনা হলে বেগম জিয়ার মুক্তি এবং নির্দলীয় সরকারের দাবি চাপা পড়ে যেতে পারে। তাছাড়া এ নিয়ে বেশি দূর এগোতেও পারবে না দলটি।

জানা গেছে, দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের একাধিক বৈঠকে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে সাম্প্রতিক সময়ে দেওয়া গায়েবি মামলার বিষয়টি উঠে এসেছে। তারা মনে করছেন, তারেক রহমানের সাজাকে কেন্দ্র করে বিএনপি আন্দোলনে যেতে পারে এমন ধারণা থেকে সরকার হয়ত এই মামলাগুলো দায়ের করেছে।

সূত্র জানায়, তারেক রহমানের সাজাকে কেন্দ্র করে আন্দোলনে গেলে সরকার এর সুবিধা নিতে চাইবে। দেশে-বিদেশে বার্তা দেবে যে, বিএনপি সাজার রায়ের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমেছে। বিএনপি চায় না এ ইস্যুতে আন্দোলনে নেমে খালেদা জিয়ার মুক্তি, নির্দলীয় সরকার ইস্যু ও ঐক্য প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করতে। দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজা হওয়ার পরও যেভাবে নেতাকর্মীরা শান্ত থেকেছেন, এবারও তাদের সেই রকম নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে গতকাল দলের নয়াপল্টন অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীও বলেছেন, রায়ের প্রতিবাদের বিএনপি শান্তিপূর্ণ প্রতিক্রিয়া দেখাবে। তিনি বলেন, ‘আগামীকাল বুধবার ২১ আগস্ট বোমা হামলা মামলার রায়ও সরকারের ইচ্ছার বাইরে হতে পারবে কিনা তা নিয়ে জনমনে সংশয় রয়েছে। নিম্ন আদালতের বিচারকদের ওপর প্রতিনিয়ত চাপের কারণে মানুষ এখন ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আগে দেখি কী রায় হয়? তবে রায় যাই হোক না কেন, বিএনপি শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি দেবে।’

"