বিশ্ব ওজোন দিবস আজ

প্রকাশ : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক
ama ami

‘শীতল থাকার পরিবেশবান্ধব কৌশল, মেনে চলি মন্ট্রিল প্রটোকল’Ñ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আজ বাংলাদেশসহ বিশ্বে পালিত হচ্ছে বিশ্ব ওজোন দিবস। সূর্যের ক্ষতিকর অতি বেগুনি রশ্মি থেকে পৃথিবীর সব প্রাণী রক্ষায় ১৯৮৭ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর মন্ট্রিল প্রটোকল গৃহীত হয়। এটি স্বাক্ষরের ৩১ বছর পূর্তিতে এবার বিশ্ব ওজোন দিবসকে খুব তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাণী দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন, আগামী প্রজন্মের জন্য বাসযোগ্য একটি পৃথিবী গড়তে হবে। বিশ্বব্যাপী শিল্পায়ন ও নগরায়ণের প্রভাবে দিন দিন পরিবেশ দূষণ বেড়ে চলেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক ওজোন দিবস পালনের মাধ্যমে জনগণের মধ্যে ওজোন স্তর ক্ষয় এবং এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় সৃষ্ট জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাব সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে। রাষ্ট্রপতি বলেন, পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে ওজনস্তর সূর্যের ক্ষতিকর অতি বেগুনি রশ্মি থেকে জীব বৈচিত্র্যকে সুরক্ষা দিয়ে থাকে। আর ওজন স্তর ধ্বংসের ক্ষেত্রে বিভিন্ন শিল্পে বিশেষ করে শীতলীকরণ শিল্পে ব্যবহৃত ক্লোরো ফ্লোরো কার্বন বা সিএফসি গ্যাস বড় ভূমিকা রাখে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় জ্বালানি সাশ্রয়ী পরিবেশবান্ধব শীতলীকরণ বিকল্প গ্যাস ও যন্ত্র ব্যবহারে সবাই আরো সচেতন হবে। ওজোন স্তর রক্ষায় ১৯৮৭ সাল থেকে বিশ্ববাসী একযোগে কাজ করে যাচ্ছে। ফলে ওজোন স্তর ক্রমান্বয়ে পূর্বের অবস্থায় ফিরে যাচ্ছে। বাংলাদেশও এ কার্যক্রমের গর্বিত অংশীদার। তিনি বলেন, ১৯৮৭ সালে ওজোন স্তর রক্ষায় গৃহীত মন্ট্রিল প্রটোকল এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ। এ প্রটোকল বাস্তবায়নের প্রথম দিকে সিএফসি ও এইচসিএফসির পরিবেশবান্ধব বিকল্প না থাকায় হাইড্রোফ্লোরোকার্বন ব্যবহার অনুমোদন করা হয়, যা উচ্চমাত্রায় উষ্ণায়ন ক্ষমতাসম্পন্ন রাসায়নিক।

"