জাফলংয়ে নৌমন্ত্রী

নদী দখলকারীরা এ সময়ের রাজাকার আলবদর

প্রকাশ : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধি
ama ami

নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, একাত্তরে রাজাকার, আলবদর ও স্বাধীনতাবিরোধী পরাজিত শত্রুরা দেশের মানুষকে খুন করেছে। কিন্তু বর্তমান সময়ে যারা নদী দখল করছে তারা এ সময়ের রাজাকার, আলবদর। তিনি গতকাল শনিবার দুপুরে জাতীয় নদীরক্ষা কমিশন ও জেলা প্রশাসন আয়োজিত মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন।

সিলেট অঞ্চলে বোমা মেশিন দিয়ে পাথর উত্তোলনের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীও উদ্বিগ্ন উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিষয়টি সরেজমিনে পরিদর্শন করতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই আমি সিলেটে এসেছি। এ সময় নদী ও পরিবেশ বিনষ্টকারীদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি। জাফলংকে তার আগের রূপে ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দেন নৌমন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, আগামী নির্বাচনে যদি কেউ আওয়ামী লীগকে ফুঁ দিয়ে উড়িয়ে দেওয়ার কথা চিন্তাভাবনা করে থাকে তাহলে, সেই চিন্তা হবে দিবা স্বপ্নের মতো। কারণ আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধুর নাম দেশের মানুষের হৃদয়ে মিশে আছে। তাই মানুষের হৃদয় থেকে এ দুটি নাম ফুঁ দিয়ে উড়িয়ে দেওয়া যাবে না।

মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় নদীরক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মুজিবুর রহমান হাওলাদার ও সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী। এতে সভাপতিত্ব করেন সিলেটের জেলা প্রশাসক নুমেরী জামান।

সভায় ছিলেন বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান তপন কুমার চক্রবর্তী, জাতীয় নদীরক্ষা কমিটির সদস্য শারমিন মোর্শেদ, সিলেট জেলা নদীরক্ষা কমিটির সদস্য সচিব অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, সিলেট জেলা পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান, যুব উন্নয়ন অধিদফতর সিলেটের উপপরিচালক ও নদীরক্ষা কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য মো. আলাউদ্দিন, সড়ক ও জনপথ বিভাগ সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী উৎপল সামন্ত, সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম, পরিবেশ অধিদফতর সিলেটৈর উপপরিচালক আলতাফ হোসেন, সিলেটের কৃষি অধিদফতরের পরিচালক আবুল হোসেন, সিলেট জেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুলতান আহমেদ, বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) সিলেটের সমন্বয়কারী শাহ শাহেদা আক্তার, গোয়াইনঘাটের উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ^জিত কুমার পাল প্রমুখ।

মতবিনিময় শেষে বিকেলে মন্ত্রী তামাবিল স্থলবন্দর উন্নয়ন ও পরিচালনায় গতিশীলতা আনয়নের নিমিত্তে গঠিত উপদেষ্টা কমিটির ১ম সভায় অংশ নেন। এর আগে সকালে মন্ত্রী জাফলং পৌঁছে বিজিবির সংগ্রাম সীমান্ত ফাঁড়ি এলাকা থেকে পিয়াইন ও ডাউকী নদীর দূষণ পরিস্থিতি পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষণ করেন।

"