সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫

প্রকাশ : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

সড়ক দুর্ঘটনায় রংপুর, হাটহাজারী ও রাজশাহীতে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ১৫জন। প্রতিনিধি ও ব্যুরোর পাঠানো খবরÑ

রংপুর : রংপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল মোড়ে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই পথচারী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন। গতকাল শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টায় টার্মিনাল মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- মিঠাপুকুর উপজেলার আফজালপুর গ্রামের গোলাম মোস্তফার স্ত্রী হাসিনা বেগম (৫৫) ও রংপুর নগরীর বড় বাড়ি হিন্দু পাড়া মহল্লার যোগেশ চন্দ্রের ছেলে দুলাল চন্দ্র (৪৫)। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, এমকে পরিবহনের বাসের চালক টার্মিনাল মোড়ে গাড়িটি ঘুরিয়ে নেয়। এ সময় বেপরোয়া গতিতে আসা গাইবান্ধাগামী মায়ের আশীর্বাদ পরিবহন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এমকে পরিবহনকে ধাক্কা দেয়। মুহূর্তেই এমকে পরিবহন গাড়িটি দুমড়ে মুচড়ে উল্টো যায়। এতে ঘটনাস্থলে এক নারীসহ ২ জন মারা যায়। আহত হয় অন্তত ১৫ জন। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে এমকে পরিবহনের ভিতর থেকে মরদেহ ও আহত যাত্রীদের উদ্ধার করেন। পরে আহতদের ফায়ার সার্ভিসের অ্যাম্বুলেন্সে করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে ৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। কোতোয়ালি থানার ওসি মুক্তারুল আলম বলেন, ঘটনাস্থলে কেন্দ্র সড়কে বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে সেখানে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু মারুফ হোসেন জানান, এ ঘটনার পর বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছেন। তবে বাস দুটি পুলিশ জব্দ করেছে।

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) : চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে সড়ক দুর্ঘটনায় মো. নুরুল হুদা (৪৫) ও আবুু তৈয়ব (১৫) নামের দুই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে হাটহাজারী-নাজিরহাট মহাসড়কের চারিয়া বুড়িপুকুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে একটি সিএনজি ট্যাক্সি হাটহাজারী থেকে গ্যাস নিয়ে যাওয়ার সময় একটি কুকুরকে বাঁচাতে গিয়ে ট্যাক্সিটি উল্টে যায়। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মাইক্রোবাস সিএনজি ট্যাক্সিকে চাপা দিলে ট্যাক্সিতে থাকা দুই ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদের মৃত ঘোষণা করেন। নিহতরা হলেন, ফটিকছড়ি উপজেলা নানুপুর ইউনিয়নের গামারীতলা এলাকার ইদ্রিস মিয়ার ছেলে নুরুল হুদা ও একই গ্রামের রফিকের ছেলে আবু তৈয়ব। হাটহাজারী থানার ওসি বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

রাজশাহী : রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের সামনে মাইক্রোবাসের চাপায় একজন নিহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তির নাম মুজিবুর রহমান (৫০)। তিনি নওগাঁর সাপাহার উপজেলার এলেননগর গ্রামের কলিম উদ্দিনের ছেলে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রামেক হাসপাতালের প্রধান ফটকের সামনে দ্রুতগতির একটি মাইক্রোবাস তাকে চাপা দেয়। এ সময় তিনি গুরুতর আহন হন। রামেক হাসপাতালে ভর্তির পর রাত সাড়ে ১১টার দিকে তিনি মারা যান। নগরীর রাজপাড়া থানার ওসি হাফিজুর রহমান জানান, নিহত মুজিবুরের ভাই রামেক হাসপাতালে ভর্তি আছেন। মুজিবুর তার জন্য ওষুধ কিনতে যাচ্ছিলেন। এ সময় প্রধান ফটকের সামনে একটি মাইক্রোবাস তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে রাতেই স্বজনরা মুজিবুরের মরদেহ বাড়ি নিয়ে যান। ওসি বলেন, নিহতের পরিবার কোনো অভিযোগ করেনি। মাইক্রোবাস চালককে আটক করা সম্ভব হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

"