টেকনাফে আগ্নেয়াস্ত্র ও ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা ডাকাত গ্রেফতার

প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

কক্সবাজার প্রতিনিধি
ama ami

কক্সবাজারের টেকনাফে দেশীয় তৈরি আগ্নেয়াস্ত্র ও চার রাউন্ড কার্তুজ ও সাত হাজার ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা ডাকাত জহির আহমদকে (৩৫) আটক করেছে মডেল থানার পুলিশ। গতকাল বৃহ¯পতিবার ভোর রাতে তাকে আটক করা হয়েছে। সে টেকনাফ নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যা¤েপর ই-ব্লকের ২০৫নং রুমের হোছন আহাম্মদের ছেলে।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রনজিত কুমার বড়–য়া জানান, হ্নীলা লেদা ক্যা¤েপর ডি ব্লকের ২০৫নং রুমের সাহাব উদ্দীনের বসতঘরের চলের ওপর থেকে পলিথিন মোড়ানো একটি দেশীয় তৈরি আগ্নেয়াস্ত্র, একটি একনলা বন্দুক, চারটি কার্তুজ ও সাত হাজার পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করা হয়েছে।

ওসি আরো বলেন, গত বুধবার টেকনাফের নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্প পুলিশ ইনর্চাজ কবির হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ, বিজিবি ও আনসার সদস্যদের একটি যৌথ টিম হ্নীলা জাদিমুরা শালবাগান নতুন রোহিঙ্গা ক্যা¤প সংলগ্ন পাহাড়ের কাছাকাছি এলাকায় একদল ডাকাত অবস্থান করার গোপন সংবাদে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। পরে তাকে টেকনাফ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী টেকনাফ থানা পুলিশের টিম হ্নীলা লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় অভিযান চালিয়ে আগ্নেয়াস্ত্র, কার্তুজ ও ইয়াবা উদ্ধার করে।

ওসি রনজিত কুমার বড়–য়া বলেন, আটক ডাকাত জহির চিহ্নিত রোহিঙ্গা ডাকাত নুর আলমের সহযোগী। এই রোহিঙ্গা ডাকাত অবৈধ অস্ত্র ব্যবহার করে মাদক ব্যবসা, ডাকাতিসহ অপরাধ কর্মকান্ডে জড়িত ছিল। আটক ডাকাতের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা করে কক্সবাজার আদালতে পাঠানো হবে। তবে স্থানীয় ও রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে পুলিশের নজরদারির পাশাপাশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন।

"