সাভারে সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ নারী কর্মীদের চেক বিরতণ

প্রকাশ : ৩০ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

আশুলিয়া প্রতিনিধি

ঢাকার সাভারে নারী কর্মীদের সঞ্চয়কৃত অর্থের চেক ও সদনপত্র বিতরণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বিকেলে পল্লী কর্মসংস্থান ও সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ কর্মসূচি-২ (আরইআরএমপি-২) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় জিওবি অর্থায়নে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর (এলজিইডি) সাভার, ঢাকার আয়োজনে উপজেলা প্রকৌশলী মো. রেজাউর রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) ও প্যানেল চেয়ারম্যান-২, মিনি আক্তার ঊর্মি। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার ভূমি (আশুলিয়া রাজস্ব সার্কেল) মাজহারুল ইসলাম, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা ফারহানা আহমেদ।

আয়োজিত কর্মশালা থেকে চার বছর মেয়াদি প্রকল্পের আওতায় ১২০ জন নারী কর্মীকে নগদ ৬০ লাখ ৫০ হাজার টাকার চেক ও কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ সনদপত্র তুলে দেওয়া হয়।

অর্থ প্রাপ্তির পর উপজেলার বিরুলিয়া এলাকার নারী কর্মী সোনিয়া আক্তার বলেন, আমি তিন বছর ধরে পল্লী কর্মসংস্থান ও সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ কর্মসূচি-২ আওতায় কাজ করেছি। এ প্রকল্পে কাজ করে প্রতিমাসে তিন হাজার টাকা করে নগদ পেয়েছি। এ ছাড়া বেতনের ১ হাজার ৫০০ টাকা করে ব্যাংকে নিজ অ্যাকাউন্টে সঞ্চয় হিসেবে জমা করেছি। যেখান থেকে প্রকল্প শেষে আমাকে ৫১ হাজার ২৭২ টাকার চেক এবং কাজের স্বীকৃতি হিসেবে একটি সনদপত্র প্রদান করা হয়েছে।

সোনিয়া বলেন, প্রকল্পটি আমাদের জন্য খুবই উপকারী ছিল। এর মাধ্যমে যেমন প্রতি মাসে সংসারের জন্য নগদ অর্থ উপার্জন করেছি এখন প্রকল্প শেষে একসঙ্গে অনেকগুলো টাকা পেয়েছি। এ টাকার সাথে আরো টাকা যোগ করে আমি নিজেদের মাথা গোজার জন্য একটু জমি কিনব। তাই তিনি সরকারের কাছে ভবিষ্যতেও এ ধরনের প্রকল্প চালু রাখার দাবি জানান। উপজেলা প্রকৌশলী মো. রেজাউর রহমান বলেন, নিজেদের কাজের বিনিময়ে অর্জিত টাকা থেকে নারী কর্মীদের সুবিধামতো নিজ নামে সঞ্চয় করে রাখা হয়। আজ প্রকল্প শেষে সঞ্চয়কৃত টাকার চেক ও সনদপত্র বিতরণ করা হলো।

 

"