ঢাবির নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার দাবি ওয়ার্কার্স পার্টির

প্রকাশ : ১১ জুলাই ২০১৮, ০০:০০

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ‘বহিরাগতদের’ অবস্থান ও কার্যক্রমে নিষেধাজ্ঞাকে ‘বিশ্ববিদ্যালয় ধারণার চরম বিরোধী’ অভিহিত করে শিগগিরই তা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি। মঙ্গলবার দলটির পলিটব্যুরোর এক বিবৃতিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্তের নিন্দা জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের জন্য নিষেধাজ্ঞা জারি চরম দুঃখজনক। আন্দোলন-সংগ্রামের বিভিন্ন পর্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের কোনো সময়েই এ ধরনের ঘটনা ঘটেনি।

এটা বিশ্ববিদ্যালয় ধারণার চরম বিরোধী। ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্য এবং তার ধারণা অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালিত হয় বলে আমরা বিশ্বাস করি। আশা করি শিগগিরই এ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হবে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বা প্রক্টরের অনুমতি ছাড়া ক্যাম্পাসে ‘বহিরাগতদের’ অবস্থান, ঘোরাফেরা এবং কার্যক্রম পরিচালনায় নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার কথা সোমবার বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। কোটা সংস্কার আন্দোলনের পর ক্যাম্পাসে উদ্ভূত ‘অনাকাক্সিক্ষত’ পরিস্থিতি মোকাবিলায় গত ৫ জুলাই রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভোস্ট কমিটির সভায় নেওয়া এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে প্রয়োজনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রভোস্ট কমিটির সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল ও হোস্টেলগুলোর সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত হয়েছে, ছাত্রত্ব নেই এমন কাউকে হলে থাকতে দেওয়া হবে না; ‘অছাত্রদের’ হল ছাড়ার নির্দেশ দিয়ে নোটিশ টানিয়ে দেওয়া হবে। হল প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া কোনো অভিভাবক বা অতিথিও হলে অবস্থান করতে পারবে না। কোটা আন্দোলনকে কেন্দ্র করে সংঘটিত ঘটনাগুলোর তদন্ত করে সুপারিশসহ প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য মুহাম্মদ সামাদকে আহ্বায়ক করে সাত সদস্যের একটি কমিটিও করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

"