সংসদে নৌমন্ত্রী

নৌমন্ত্রণালয়ের ৬৩ জাহাজ ও নৌযান রয়েছে

প্রকাশ : ১৩ জুন ২০১৮, ০০:০০

সংসদ প্রতিবেদক

বিআইডব্লিউটিএর যান্ত্রিক ও নৌপ্রকৌশল বিভাগের মোট ৬৩টি জাহাজ ও নৌযান রয়েছে। এসব জাহাজ ও নৌযানের মধ্যে বয়া টেন্ডার ভ্যাসেল তিনটি, কোস্টাল সার্ভে জাহাজ একটি, উদ্ধারকারী জাহাজ চারটি, টাগ জাহাজ নয়টি, সার্ভে কাম ইন্সপেকশন জাহাজ ১০টি, সার্ভে ওর্য়াকবোট ১৩টি, কেবিন ক্রুজার/স্পীড বোট নয়টি, ট্রেনিং জাহাজ একটি, সার্ভে হাউজ বোট তিনটি এবং মাকিং বোট ১০টি। গতকাল মঙ্গলবার নওগাঁ-১ থেকে নির্বাচিত এমপি সাধন চন্দ্র মজুমদারের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান সংসদকে এসব তথ্য জানান। সকাল সাড়ে ১০টায় স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের অধিবেশন শুরু হয়।

ওই সংসদের একই প্রশ্নের জবাবে নৌমন্ত্রী আরো বলেন, এ বিভাগের নিয়ন্ত্রণাধীন নৌযান সমূহ অভ্যন্তরীণ সকল নৌদুর্ঘটনায় উদ্ধার অভিযান, রুটে নৌপথ সংরক্ষণের কাজে পরিদর্শন এবং নৌপথ, নদী জরিপ ও পরিচালনা কাজে নিয়োজিত থাকে। বিআইডব্লিউটিএর যান্ত্রিক ও নৌপ্রকৌশল বিভাগের নতুন জাহাজ ক্রয় বা নির্মাণ করার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা আছে।

মন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমানে বিআইডব্লিউটিসির অধীনে বিভিন্ন ধরনের ১৮১টি নৌযান রয়েছে। এর মধ্যে সচল রয়েছে ১০১টি নৌযান যা দেশের অভ্যন্তরীণ ও উপকূলীয় নৌপথে চলাচল করে থাকে। নৌযোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নকল্পে বিআইডব্লিউটিসি ২০০৯ সাল থেকে চলতি বছরের মে মাস পর্যন্ত বিভিন্ন ধরনের ১৯টি ফেরি, ১০টি পল্টুন, দুটি অভ্যন্তরীণ যাত্রীবাহী (এমভি বাঙালি ও এমভি মধুমতি) জাহাজ, ১২টি ওয়াটার বাস, চারটি সী-ট্রাক ও চারটি কন্টেইনারবাহী জাহাজসহ মোট ৪১টি বাণিজ্যিক নৌযান এবং ১০টি সহায়ক নৌযানসহ সর্বমোট ৫১টি নৌযান নির্মাণপূর্বক সার্ভিসে নিয়োজিত করেছে। উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় এ সকল নতুন ও আধুনিক নৌযান সার্ভিসে নিয়োজিত করার ফলে ক্রমবর্ধিত যানবাহন ও যাত্রীর সুষ্ঠু পারাপারসহ ঈদের সময় নৌযোগাযোগ ব্যবস্থা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করা সম্ভব হচ্ছে।

নৌমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে আটটি ফেরি রুটে দৈনিক গড়ে সাড়ে সাত হাজার থেকে আট হাজারের বেশি যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। বর্তমানে উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় বিভিন্ন ধরনের আটটি নৌযান নির্মাণাধীন রয়েছে এবং ১৬.৮১ কোটি টাকা ব্যয়ে রো রো ফেরি হামিদুর রহমান ও রো রো ফেরি মতিউর রহমান রি-ইঞ্জিনিং ও আংশিক পুনর্বাসনের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

ঝালকাঠি-১ থেকে নির্বাচিত এমপি বজলুল হক হারুণের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে নৌমন্ত্রী শাজাহান খান বলেন, বিআইডব্লিউটিসি একটি সরকারি সেবামূলক বাণিজ্যিক জাহাজ পরিচালনাকারী সংস্থা।

দেশের অভ্যন্তরীণ ও উপকূলীয় নৌরুটে নিরাপদ যাত্রী, যানবাহন ও পণ্য পরিবহনে বিআইডব্লিউটিসি অঙ্গীকারবদ্ধ। মন্ত্রী বলেন, নৌদুর্ঘটনা রোধকল্পে প্রাকৃতিক দুর্যোগের সংকেতসমূহ সকল ধরনের নিরাপত্তা সংকেত প্রদান আধুনিক ও গতিশীল করার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে। এ লক্ষ্যে এস্টাবলিস্টমেন্ট অব গ্লোবাল মেরিটাইম ডিসট্রেস অ্যান্ড সেফটি সিস্টেম (জিএমডিএসএস) এবং ইন্ট্রিগ্রেটেড মেরিটাইম নেভিগেশন সিস্টেম (ইজিআইএসএনএস) শীর্ষক প্রকল্প গৃহিত হয়েছে, যার বাস্তবায়ন চলমান রয়েছে।

মন্ত্রী আরো বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে অভ্যন্তরীণ, উপকূলীয় ও সমুদ্রগামী নৌযানসমূহ সকল ধরনের নিরাপত্তা সংকেত আরো দ্রুততার সঙ্গে পাবে এবং সে অনুসারে করণীয় সম্পর্কে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারবে। এছাড়া দেশের নৌদুর্ঘটনা প্রতিরোধে প্রাকৃতিক দুর্যোগে সংকেত দান পূর্বাভাস কেন্দ্রগুলো আরো আধুনিক ও গতিশীল করার পরিকল্পনার বিষয়টি আবহাওয়া অধিদফতর এবং দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট।

"