এনজিওর ঋণের মামলায় শিশুসহ ৩ নারী গ্রেফতার

প্রকাশ : ১৮ মে ২০১৮, ০০:০০

নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি

একটি বেসরকারি সংস্থার (এনজিও) মামলায় গ্রেফতার হয়েছে ঢাকার নবাবগঞ্জের তিন নারী। এরা হলোÑ রীনা বেগম, বিউটি ও সুবর্ণা। বাংলাদেশ এক্সটেনশন এডুকেশন সার্ভিসেস (বিজ) নামের ওই এনজিওর কাছ থেকে ঋণ নিয়েছিলেন তারা। গ্রেফতার নারীদের ভাষ্য, মামলার নোটিশ তারা পাননি। এনজিও কর্মকর্তারা মামলার ফাঁদে ফেলে টাকা দেওয়ার পরও মামলা দিয়েছে, গ্রেফতার করিয়েছে। ঋণের ফাঁদে পড়ে এখন বিপাকে পড়েছে এই তিন নারী। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ও বুধবার রাতে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ। ঋণ নেওয়ার পর রীনা বেগম পাকস্থলী ও ফুসফুসে ঘাসহ জটিল রোগে আক্রান্ত হন। আর হতদরিদ্র সুবর্ণার কোলে ৫ মাসের একটি শিশু সন্তানও রয়েছে।

রীনা বেগম অভিযোগ করে বলেন, ‘পরিবারের আর্থিক অনটন ঘোচাতে গত বছর বিজ থেকে ৬০ হাজার টাকা ঋণ গ্রহণ করি। এ সময় একটি সাদা চেকের পাতায় আমার স্বাক্ষর রাখেন এনজিও কর্মকর্তারা। ৪-৫ সাপ্তাহিক কিস্তি দেওয়ার পরই আমি জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ি। চিকিৎসা করতে আমার অনেক খরচ হয়েছে। সাংসারিক অনটনে আর এনজিওর কিস্তির টাকা দিতে পারিনি। আমার স্বামী পরান কাজী তাদের বারবার অনুরোধ করেও এনজিও কর্মীদের মন গলাতে পারেননি। এনজিওর কর্মকর্তারা ছিলেন অনড়। তারা আমার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।’

নবাবগঞ্জ থানা ফটকের সামনে রীনা বেগমের স্বামী পরান কাজী বলেন, ‘এনজিও কর্মকর্তাদের কাছে রীনার চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র দিলেও তারা গ্রহণ করেননি।

"